স্পোর্টস

নাটকীয় জয়ে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড

ক্রীড়া ডেস্ক 

কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের ঝড়ে বড় পুঁজি পেয়েছিল নিউজিল্যান্ড। তারপরও ইংল্যান্ডের টপ অর্ডারের শক্ত ভিত শঙ্কায় ফেলেছিল নিউজিল্যান্ডকে। শেষ পর্যন্ত অবশ্য লকি ফার্গুসনের দুর্দান্ত বোলিং নৈপুণ্যে নাটকীয় জয় তুলে নেয় কিউইরা। এর ফলে স্বাগতিকরা পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে।

নেলসনের স্যাক্সটন ওভালে গতকাল সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ইংল্যান্ডকে ১৪ রানে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। ১৮০ রান তাড়ায় ইংলিশরা থামে ১৬৬ রানে। ৫৫ রানের ঝড়ো ইনিংসে ম্যাচসেরা হয়েছেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম।

ইংল্যান্ডের জিততে শেষ ৩১ বলে প্রয়োজন ছিল ৪২। কিন্তু একের পর এক ব্যাটসম্যান উইকেট ছুড়ে দেওয়ায় মুঠোয় থাকা ম্যাচ হাতছাড়া হয়ে যায় ইংলিশদের। তাতে টানা দুই জয়ে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে নিউজিল্যান্ড।

গতকাল ওপেনার টম ব্যান্টন দ্রুত ফিরলেও দ্বিতীয় উইকেটে ডেভিড মালান ও জেমস ভিন্সের জুটিতে ৭.৩ ওভারে আসে ৭২ রান। ৩৪ বলে ৮টি চার ও এক ছয়ে ৫৫ রান করে মালান ফেরেন ইশ সোধির ঘূর্ণিতে। পরে অধিনায়ক ইয়ান মরগানের সঙ্গে ভিন্সের জুটিতে ৪৯ রান আসে ২৭ বলে। কিন্তু পরবর্তী ১০ রানের মধ্যে ইংলিশরা হারিয়ে ফেলে পাঁচ উইকেট। ভিন্স অবশ্য ছিলেন ভরসা হয়ে। কিন্তু ব্লেয়ার টিকনারকে বড় শট খেলতে গিয়ে তিনিও ৪৯ রানে মিড-অফে ক্যাচ দেন। তার ৩৯ বলের ইনিংসে চারটি চারের পাশাপাশি ছিল একটি ছয়।

শেষ ওভারে ইংল্যান্ডকে বড় ধাক্কা দেন লকি ফার্গুসন। তিন বলের মধ্যে তুলে নেন লুইস গ্রেগরি ও স্যাম কারানের উইকেট। যে কারণে জয়ের খুব কাছে গিয়েও পারেনি ইংল্যান্ড।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে মার্টিন গাপটিলের নৈপুণ্যে দারুণ শুরু পায় নিউজিল্যান্ড। সাতটি চারে ১৭ বলে ৩৩ রান করেন ওপেনার। প্যাট ব্রাউনের শিকার হয়ে ফেরেন তিনি। গতকাল ফের ব্যর্থ হন কলিন মানরো ও টিম সাইফার্ট।

সর্বশেষ..