সারা বাংলা

নাব্য সংকটে ফেরি চলাচল আবারও বন্ধ

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুট

প্রতিনিধি, মুন্সীগঞ্জ: নাব্য সংকটের কারণে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে আবারও ফেরি চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে ঘাট কর্তৃপক্ষ। বিআইডব্লিউটিসির সহ-ব্যবস্থাপক সাফায়েত আহমেদ এসব তথ্য নিশ্চিত করে জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় কাঁঠালবাড়ী নৌরুট থেকে শিমুলিয়ায় আসার পথে ফেরি মুন্সীগঞ্জের লৌহজং চ্যানেলে ডুবোচরে আটকে যায়। এরপর শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটের সব ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়।

তিনি আরও জানান, দুর্ঘটনা এড়াতে সকাল সাড়ে ১০টায় ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয় বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ। ফেরি বন্ধ থাকায় দুই পাড়ে তিন শতাধিক ছোট-বড় যানবাহন পারাপারের অপেক্ষায় আছে। লৌহজংয়ের শিমুলিয়া ঘাটে ৫০টি পণ্যবাহী ট্রাক ও ছোট গাড়িসহ শতাধিক যানবাহন পারাপারের অপেক্ষায় আছে।

তিনি বলেন, চ্যানেলে ফেরি চলাচলের জন্য কমপক্ষে আট ফুট পানি থাকার প্রয়োজন থাকলেও সেখানে পলি জমে ছয় থেকে সাড়ে ছয় ফুট পানি রয়েছে। দফায় দফায় এ নৌরুটে ফেরি চলাচলে বিঘœ ঘটায় যাত্রীরা পড়েছেন বিপাকে। তবে বিআইডব্লিউটিএ ড্রেজিং চালিয়ে যাচ্ছে। কবে বা কখন ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হতে পারে, এ ব্যাপারে কেউ জানাতে পারেননি।

সংশ্লিষ্টরা জানান, চ্যানেলে পলি চলে আসছে। পানির গভীরতা না থাকায় ফেরি চলাচল করতে পারছে না। বিআইডব্লিউটিএ পলি অপসারণ করলে ফেরি চলাচল শুরু হবে। বিআইডব্লিউটিএ বলতে পারবে ফেরি কখন চালু করা যাবে।

বিআইডব্লিউটিএর নৌ-পরিদর্শক মো. সোলেমান জানান, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ৮৭টি লঞ্চ ও সাড়ে তিন শতাধিক স্পিডবোট চলাচল করছে। তবে ফেরি সীমিত থাকার কারণে লঞ্চ ও স্পিডবোট ঘাটে যাত্রীচাপ বেড়েছে।

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের মাওয়া ট্রাফিক পুলিশের ইনচার্জ (টিআই) মো. হিলাল উদ্দিন জানান, শিমুলিয়া ঘাটে শতাধিক এবং কাঁঠালবাড়ী ঘাটে দুই শতাধিক যানবাহন আটকে পড়েছে। এর মধ্যে ট্রাকই বেশি বলে জানান তিনি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..