টেলকো টেক

নারীর যাতায়াত নিরাপত্তা নিশ্চিতে উবার

একটি উৎকৃষ্ট বিশ্ব তৈরির জন্য নারী-পুরুষের বৈষম্যহীন সমঅধিকার প্রতিষ্ঠার কোনো বিকল্প নেই। নারী-পুরুষ মিলেমিশে কাজ করলে তৈরি হয় ইতিহাস, যার অসংখ্য উদাহরণ রয়েছে ইতিহাসে। তবে এখনও নারীদের প্রতি বৈষম্য রয়ে গেছে, বিশেষত গণপরিবহনে।

সড়ক নিরাপত্তা ফাউন্ডেশনের জরিপ অনুযায়ী, দেশের ৮৩ শতাংশ নারী গণপরিবহনে যাতায়াতের সময় এর কর্মীদের দ্বারা শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়। জরিপে অংশ নেওয়া নারীরা জানিয়েছেন, তারা গণপরিবহনে চলাচলের সময় নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত থাকেন। এসব পরিবহনে নারীদের জন্য বরাদ্দ আসনগুলো যেমন যৎসামান্য, তেমনি অনেক সময় অনেক পুরুষ কখনও জেনে, কখনও না জেনে সেগুলো দখল করে রাখে। তাছাড়া যেভাবে গণপরিবহনগুলো চলাচল করে, তা নারীদের জন্য মোটেও বন্ধুসুলভ নয়। অসংখ্য মানুষের ভিড়, ধাক্কাধাক্কি আর চলন্ত গাড়িতে ওঠানো বা নামানোর মতো বিপজ্জনক ব্যবস্থা নারীদের গণপরিবহনবিমুখ করে তুলেছে।

পেশাজীবী নারীদের কল্যাণে আজ দেশের অর্থনীতি অগ্রসরমান। কিন্তু গণপরিবহনে যাতায়াতের ভয়ে তারা অনেকে ঘরের বাইরে যেতে চান না। শুধু নারীদের জন্য পরিবহন ব্যবস্থায় কিছু পরিবর্তন আনা প্রয়োজন, যা তাদের যাতায়াত ব্যবস্থাকে নিরাপদ ও আরামদায়ক করে তুলবে। এ সমস্যা নিষ্পত্তিতে উবার রাইডশেয়ারিং সার্ভিস হতে পারে কার্যকর ও নিরাপদ।

যেসব কারণে উবার হতে পারে পছন্দের সার্ভিস

অন-ডিমান্ড ট্রান্সপোর্টেশন: মাত্র একবার বাটনে প্রেস করে যে কোনো সময়, যে কোনো স্থানে যাত্রীর নিরাপদ, নির্ভরযোগ্য, সুবিধাজনক ও আরামদায়ক ভ্রমণের মান নিশ্চিত করা যায়। ২৪ ঘণ্টা চালু থাকার কারণে গণপরিবহনের বিকল্প হিসেবে উবার বেশ উপযোগী এক মাধ্যম

 সেফটি ফিচার: পাঁচজন বিশ্বস্ত কন্টাক্টের সঙ্গে ‘শেয়ার স্ট্যাটাস’, ‘লাইভ জিপিএস ট্র্যাকিং’, ‘ভেরিফায়েড পার্টনার’ অ্যাপের মাধ্যমে ২৪ ঘণ্টা সহায়তা দেওয়াসহ ‘টু-ওয়ে ফিডব্যাক’ সুবিধা দিচ্ছে উবার। ফলে নারীরা উবারে নিরাপদ ও আরামদায়ক ভ্রমণ উপভোগ করতে পারেন

গণপরিবহনের বিকল্প: রাইডশেয়ারিং সার্ভিস নারীর যাতায়াত ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন এনেছে। সামর্থ্য অনুযায়ী তারা উবারের বিভিন্ন সেবা যেমন উবার এক্স, এক্সএল, প্রিমিয়ার, হায়ার, ইন্টারসিটি, পুল ও মোটরসাইকেল সার্ভিস ‘উবার মটো’ ব্যবহার করতে পারেন

উবারের সেফটি ফিচার

জিপিএস ট্র্যাকড ট্রিপ: যাতায়াতের সময় রাইডার ‘রিয়েল-টাইম জিপিএস ট্র্যাকিং’ সুবিধা নিতে পারেন। এর মাধ্যমে কোন দিক দিয়ে যাচ্ছেন তা লক্ষ করতে পারবেন

শেয়ার স্ট্যাটাস: ‘শেয়ারিং স্ট্যাটাস’ সুবিধার মধ্যে রয়েছে যাত্রাপথের বর্ণনা; যেমন- গাড়ির তথ্য, ড্রাইভারের নাম, রেটিং প্রভৃতি। এ বিষয়গুলো পাঁচজন বিশ্বস্ত মানুষের সঙ্গে শেয়ার করতে পারবেন

জাতীয় হেল্পলাইন ৯৯৯: উবার তার অ্যাপে নতুন একটি ফিচার যোগ করেছে। এর মাধ্যমে সরাসরি জাতীয় হেল্পলাইন সার্ভিস নাম্বার ৯৯৯-এ কল করা যাবে। এটি ব্যবহারে অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও সরকারি এজেন্টদের সাহায্য যে কোনো সময় পাওয়া যাবে

ভিওআইপি ফোন কল: উবারের নতুন ভিওআইপি ফিচারটি যাত্রী ও চালককে উবার অ্যাপের মাধ্যমে একে অপরকে ফ্রি অ্যানোনিমাস কল করার সুবিধা দিচ্ছে। এ ভিওআইপি কল ফোনের সেল্যুলার পরিষেবা ব্যবহার না করে ইন্টারনেট ব্যবহার করে ভয়েস কল করার সুযোগ দিচ্ছে

ড্রাইভার প্রোফাইলস: একটি ট্রিপ বুক করার সময় উবার অ্যাপ আপনাকে চালক ও যানবাহনের বিস্তারিত বর্ণনা পাঠাবে। এতে গাড়িটির মডেল, রং ও লাইসেন্স প্লেটের নম্বরের সঙ্গে চালকের নাম, রেটিং ও অন্য রাইডার থেকে প্রাপ্ত ফিডব্যাক উল্লেখ থাকে

অ্যাপে ২৪ ঘণ্টা সহায়তা: সাম্প্রতিক সময়ে কোনো ট্রিপ নিয়ে যদি রিপোর্টের প্রয়োজন হয়, অথবা আপনার অ্যাকাউন্ট সেটআপ কিংবা ব্যবহারের জন্য কোনো নির্দেশনার প্রয়োজন পড়ে, তাহলে আপনি উবার অ্যাপ থেকে সরাসরি সহায়তা নিতে পারবেন। উবারে যে কোনো ঘটনা রিপোর্ট করা হলে তাতে সাড়া দেওয়ার জন্য সার্বক্ষণিক ইন্সিডেন্ট রেসপন্স টিম (আইআরটি) প্রস্তুত থাকে। স্থানীয় পুলিশের তদন্তে সহায়তা করার জন্য উবারের আরও একদল কর্মী নিয়োজিত রয়েছেন, যারা অতীতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন শাখায় কর্মরত ছিলেন

রেটিং ও ফিডব্যাক: চালক কিংবা যাত্রীর কাছ থেকে কেমন ব্যবহার প্রত্যাশা করা হয়Ñতা উবার কমিউনিটির গাইডলাইনে স্পষ্ট উল্লেখ করা রয়েছে। উবারের টু-ওয়ে রেটিং ব্যবস্থা যাত্রী ও চালককে একে অপরের সঙ্গে ভালো ব্যবহার ও সম্মান দেখাতে উদ্বুদ্ধ করে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উবারের সেবা চালু রয়েছে। ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট ও কক্সবাজারসহ বিশ্বের ৭০০টির বেশি শহরে এ সেবা দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। বিশ্বের অন্য শহরগুলোর মতো বাংলাদেশের শহরগুলোয়ও উবার সাত ধরনের সেবা দিচ্ছে। এগুলো হচ্ছে: উবার এক্স, পুল, এক্সএল, প্রিমিয়ার, হায়ার, মটো ও উবার ইন্টারসিটি। অধিক নিরাপত্তা নিশ্চিতে বাংলাদেশে উবার যাত্রী ও চালকরা পাচ্ছেন বিমা সুবিধাসহ বিভিন্ন সেফটি ফিচার।

যেভাবে উবার ব্যবহার করবেন

#     আইওএস অথবা অ্যানড্রয়েড ব্যবহারকারীরা উবার অ্যাপ ডাউনলোড করে ইনস্টল করতে পারেন। এতে নিজের একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে ভিজিট করুন play.google.com/ store/ apps/details?id=com.ubercab I itunes.apple.com/us/app/uber/id368677368?mt=8

#     এরপর প্রয়োজন অনুযায়ী উবার এক্স, এক্সএল, উবার প্রিমিয়ার, উবার মোটো, উবার হায়ার ও উবার ইন্টারসিটি সিলেক্ট করতে হবে। গাড়িতে তোলার স্থান ও ভাড়া পরিশোধের বিষয়টি উল্লেখ করে রাইডের জন্য রিকোয়েস্ট পাঠাতে হবে। সঙ্গে সঙ্গে ড্রাইভার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেখা যাবে। যেমন- নাম, ছবিসহ তার গাড়ির বিস্তারিত তথ্য

# ট্রিপ শেষে ক্যাশ বা ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে ভাড়া পরিশোধ করুন এবং ইলেকট্রনিক রিসিপ্ট বুঝে নিন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..