দিনের খবর প্রচ্ছদ প্রথম পাতা ফিচার

“না খাওয়া মানুষদের জন্য কিছু করি”

অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে বাস করছেন অনেক বাংলাদেশী। করোনাভাইরাসের কারণে তাদের স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় ছন্দপতন ঘটেছে। করোনা নিয়ে তারাও উদ্বিগ্ন সময় পার করছেন। তবু থেমে নেই জীবন। এ করোনাকালেও তাদের অনেকে দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য নিরলস কাজ করছেন। আক্রান্ত ও নিরন্ন মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন তারা। এরই প্রতিফলন ঘটে এবারের পহেলা বৈশাখে।

মেলবোর্নে বসবাসরত কয়েকটি পরিবার এবারের নববর্ষ উদযাপন করে ঘরবন্দী অবস্থায়, অনলাইনে। এর উদ্যোক্তা অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী আর.এম.আইটি. ইউনিভার্সিটির লাইব্রেরি অফিসার প্রদীপ কুমার রায়। এখন পর্যন্ত তারা প্রায় ১৪০০ অস্ট্রেলিয়ান ডলার সংগ্রহ করেছেন। এ অর্থ আরও বাড়বে বলে আশাবাদী তারা। এ উদ্যোগ থেকে পাওয়া অর্থ বাংলাদেশের একটি চ্যারিটি সংগঠনের মাধ্যমে না খাওয়া মানুষদের জন্য পাঠানো হবে।

মহতী এ উদ্যোগের প্রধান থিম “নববর্ষের বাজেটে না খাওয়া মানুষদের জন্য কিছু করি”। অনুষ্ঠানটি সরাসরি জুম টেকনোলজি ব্যবহার করে ফেসবুকে লাইভে সম্প্রচার করা হয়। এতে বাংলাদেশ থেকে সরাসরি যুক্ত ছিলেন অভিনেতা ও আবৃত্তিকার দীপক সুমন, ক্লোজআপ তারকা কিশোর ক্লোডিয়াস প্রমুখ। এডিলেইড থেকে ভবানন্দ বিশ্বাস, মেলবোর্নের পূরবী কালচারাল একাডেমি ও এখানের শিল্পীরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন পারমিতা মজুমদার।

এ গ্রুপ থেকে একটি ফান্ডরাইজিং পেজ তৈরি করা হয়েছে—Save lives: Help the hungry people। এর উদ্যোক্তাও প্রদীপ কুমার রায়। বাংলাদেশের যে কেউ নিজ অবস্থান থেকে এ চ্যারিটি তহবিলে অর্থ দান করতে পারবেন। পুরো অর্থ দিয়ে বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও অভুক্ত মানুষদের সহায়তা করা হবে। এ তহবিলের অর্থ বাংলাদেশের প্রত্যন্ত এলাকায় নির্ভরযোগ্য সেচ্ছাসেবীদের মাধ্যমে সরকারী বা বেসরকারী অনুদান পায়নি এমন অভুক্ত পরিবারকে দেওয়া হবে।

অনুদান দিতে চাইলে ভিজিট করুন www.mycause.com.au/page/227514/save-lives-help-the-hungry-people এ লিংকটি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..