প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের এসপি

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ‘ডাকাত হাতে-নাতে পেলে পিষে মেরে ফেলুন’ জনসমাবেশে দেওয়া নিজের এ বক্তব্যের জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) কেএম মোজাহেদুল ইসলাম রোববার আদালতের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে অব্যাহতি পেয়েছেন।

জনসমাবেশে উসকানিমূলক ওই বক্তব্য দেওয়ায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের এসপিকে তলব করেছিলেন বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ। ৪ ডিসেম্বর তাকে সশরীরে আদালতে হাজির হয়ে এ বক্তব্যের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছিল। খবর সমকাল।

হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী রোববার সকালে আদালতে হাজির হন চাঁপাইনবাবগঞ্জের এসপি। আদালতে তার পক্ষে ছিলেন আইনজীবী শফিক আহমেদ, ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, মাহবুব শফিক প্রমুখ। রোববার মোজাহেদুল ইসলামের আইনজীবীরা জানান, এসপি মোজাহেদুল ইসলাম আদালতের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে একটি আবেদন করেন। নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ায় শুনানি শেষে আদালত তাকে অব্যাহতি দিয়েছেন।

২৫ নভেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জ চক্ষু হাসপাতাল চত্বরে চক্ষুশিবিরের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসপি মোজাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘ডাকাত যদি হাতেনাতে পান, তাহলে জলজ্যান্ত ওটাকে পিষে মেরে ফেলুন। একটা মার্ডার কেস নেব, এটা সত্য কথা তবে এক মাসের মধ্যে ফাইনাল রিপোর্ট দিয়ে চলে আসব। গ্যারান্টি আমার। আমি যদি গ্যারান্টার হই, তবে আপনাদের কোনো ভয় আছে? ডাকাত হাতেনাতে ধরতে পারলে, এলাকার লোকজনকে মাইকে ডেকে এনে ওকে পিষে মেরে ফেলেন। মাদকের গাড়ি হলে সেটি আগুনে পুড়িয়ে দেবেন। আমি গ্যারান্টি দিচ্ছি, আপনাদের নামে কোনো মামলা হবে না। এই গ্যারান্টি আমার।’ পরদিন বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে এ-সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। গত ২৭ নভেম্বর ওই প্রতিবেদনটি আদালতের নজরে আনেন আইনজীবী আশরাফ-উজ-জামান। পরে আদালত এসপির বক্তব্যের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে রুলসহ আদেশ দেন।