প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

নিউজিল্যান্ড সফরের আগেই দুঃসংবাদ দিলেন সাকিব

ক্রীড়া প্রতিবেদক: সবকিছুই ঠিকমতোই চলছিল। বল-ব্যাট হাতেও দারুণ ছন্দে ছিলেন সাকিব আল হাসান। কিন্তু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ফাইনালের পরই দুঃসংবাদ দিলেন তিনি। হাতের আঙুলের পুরোনো চোটে পড়েছেন। সুস্থ হতে কমপক্ষে লাগবে তিন সপ্তাহ। তাতেই এ বাঁহাতি আসন্ন নিউজিল্যান্ড সফরের ওয়ানডে দল থেকে ছিটকে পড়েছেন। শঙ্কা রয়েছে টেস্ট সিরিজ নিয়েও।
গত পরশু বিপিএলের ফাইনালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের বিপক্ষে সাকিব ব্যাটিংয়ে খেলেছিলেন মাত্র ৫ বল। সর্বনাশ যা হওয়ার, তা ওই সময়ের মধ্যে হয়ে যায়। থিসারা পেরেরার করা একাদশ ওভারের পঞ্চম বল পুল করতে গিয়ে তার লাগে গ্লাভসে। তখনই চোট পান বাঁহাতের অনামিকায়। পরের ওভারের প্রথম বলেই আউট হয়ে যান। ম্যাচের পর স্ক্যান করানো হয়। ধরা পড়ে আঙুলে চিড়। বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী এক বিবৃতিতে জানান, অন্তত তিন সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে চলে গেছেন সাকিব। এদিকে বিসিবির বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক সাকিব বিপিএলের ফাইনালে ব্যাট করার সময় বাঁ হাতের অনামিকায় চোট পাওয়ায় নিউজিল্যান্ডের ওয়ানডে সিরিজ থেকে ছিটকে পড়েছেন।’
গতকাল রাতেই নিউজিল্যান্ড উড়াল দেওয়ার কথা ছিল সাকিবের। কিন্তু হাতের আঙুলের পুরোনো চোটে তাকে দেশেই থাকতে হয়েছে।
নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের প্রথম ওয়ানডে আগামী বুধবার। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শেষ ২০ ফেব্রুয়ারি। এরপর প্রথম টেস্ট ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে, দ্বিতীয়টি ৮ মার্চ থেকে। ১৬ মার্চ থেকে শুরু হতে যাওয়া শেষ টেস্টেই শুধু সাকিবকে পাওয়ার বাস্তব সম্ভাবনা আছে। কিন্তু চোটের পর পুনর্বাসন প্রক্রিয়া আছে, সে বিবেচনায় সাকিবের শেষ টেস্টেও খেলার সম্ভাবনা খুব কম।
গত বছর একই চোটে ভুগেছিলেন সাকিব। যে কারণে এ বাঁহাতি খেলতে পারেননি দেশের মাটিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ছিলেন না শ্রীলঙ্কায় নিদাহাস ট্রফির প্রথম ভাগেও। পরে এশিয়া কাপেও একই সমস্যায় ভোগেন তিনি। ওই টুর্নামেন্ট শেষ না করেই এ বাঁহাতি ফিরেছিলেন দেশে। এরপর বাংলাদেশ টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক খেলতে পারেননি অক্টোবরে দেশের মাটিতে জিম্বাবুয়ে সিরিজে। এবার আঙুলের সেই চোটই নতুন করে নিউজিল্যান্ড সফর থেকে তাকে ছিটকে দিল।
সাকিবের আগে গোড়ালির গাটের চোটে পড়ে নিউজিল্যান্ড সফর থেকে ছিটকে পড়েন তাসকিন আহমেদ।