প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

নির্বাচনী সংঘর্ষে মানিকগঞ্জ ও চট্টগ্রামে নিহত ২

শেয়ার বিজ ডেস্ক: পঞ্চম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে সহিংসতায় মানিকগঞ্জ ও চট্টগ্রামে নারীসহ দুইজন নিহত হয়েছেন।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) দুপুরে মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার বাচামারা ইউনিয়নের বাচামারা ভোটকেন্দ্রে নির্বাচনী সহিংসতায় ছলেমন খাতুন (৫০) নামে এক নারী নিহত হন। ছলেমন খাতুন উপজেলার বাচামারা গ্রামের খোরশেদ আলমের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, বুধবার দুপুরের দিকে ছলেমন খাতুন ভোট দিতে বাচামারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কেন্দ্রে যান। এ সময় ৫ নং ওয়ার্ডের দুই সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া হয়। পরে ওই নারী হার্ট অ্যাটাক করেন।

দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইমরুল হাসান বলেন, বাচামারা ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডে দুই সদস্য প্রার্থীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় ওই নারী ভোট দিতে কেন্দ্রে আসেন। সংঘর্ষের কবলে পড়ে তিনি হার্ট অ্যাটাক করেন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে নিজ বাড়িতে নিয়ে গেলে তিনি মারা যান।

অপরদিকে চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে দুই মেম্বারপ্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে অংকর দত্ত নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। বুধবার বেলা ১২টার দিকে উপজেলার চাতরী ইউনিয়ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ভোট চলাকালে চাতরী ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সিংহরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের বাইরে দুই মেম্বারপ্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত অংকরকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আলাউদ্দিন তালুকদার বলেন, তার শরীরে তেমন আঘাতের চিহ্ন নেই। স্বজনদের দাবি, প্রতিপক্ষের কিল-ঘুষিতে তার মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে নিহতের মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।’

এর আগে সকাল ১০টার দিকে বোয়ালখালী উপজেলার আহলা করলডেঙ্গা ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবুল মনসুরের সমর্থকদের সঙ্গে আনারস প্রতীকের প্রার্থী আবদুল মান্নানের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়। কয়েক দফায় চলা এ সংঘর্ষে কয়েকটি গাড়িও ভাঙচুর করা হয়েছে।