স্পোর্টস

নেই কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টের নাম ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’

নেই কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি has

ক্রীড়া প্রতিবেদক: বেশ আগে থেকেই ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর সঙ্গে বিভিন্ন ব্যাপারে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) টানাপড়েন চলছিল। এর মধ্যেই গতকাল দেশের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থাটির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন দেন চমকপ্রদ সংবাদ। কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজিকেই রাখা হচ্ছে না সপ্তম বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল)। আসছে এ টুর্নামেন্টের সব খরচ বহন করবে বিসিবি। সবগুলো দল পরিচালনা করা হবে সংস্থাটির নিজস্ব ব্যবস্থাপনায়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জš§শতবার্ষিকী আগামী বছর। সে উপলক্ষে এ টুর্নামেন্টের নাম হবে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’।
ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর যেসব দাবি ছিল, বিসিবি কোনোমতেই তা মানিয়ে নিয়ে পারছে না বলে গতকাল জানিয়ে দেন বিসিবি সভাপতি। তবে মূল কারণ হিসেবে উল্লেখ করলেন বঙ্গবন্ধুকে সম্মান জানানো, ‘এটির পেছনে সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে, আপনারা জানেন আগামী বছর বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী। আমরা চাচ্ছি, এবারের বিপিএল বঙ্গবন্ধুর নামে উৎসর্গ করব। ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’ আয়োজন করে এ বছর আমরা চালাব।’
সপ্তম বিপিএলে আগের মতোই খেলবে সাতটি দল। তবে দলগুলোর পুরো মালিকানা থাকবে বিসিবির হাতে। দেশের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থাটি নিজেই ঠিক করবে, কোন খেলোয়াড় কোন দলে খেলবে। প্রতিটি দলের খরচ মেটাবে সংস্থাটি। অবশ্য কোনো প্রতিষ্ঠান যদি কোনো দলকে স্পন্সর করতে চায়, তবে সে সুযোগ থাকছে। তবে দলগুলোর মালিকানা এবার আগের মতো বিসিবি কারও কাছে হস্তান্তর করছে না। এ ব্যাপারে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘প্রত্যেক দল যেমন ছিল, সব ঠিক থাকবে। শুধু ম্যানেজমেন্ট আমাদের থাকবে। খেলোয়াড়দের থাকা-খাওয়া, গাড়ি সবকিছু আমরা করব। এতে করে অন্যরা খুশি হবে। যারা (ফ্র্যাঞ্চাইজি) এবার করতে চাচ্ছিলেন না, তারা খুশি হবেন। যারা আর্থিক ক্ষতির কথা বলছেন, তারা তো আরও বেশি খুশি হবেন। তাদের পুরো টাকাই বেঁচে যাবে।’
এর আগে বিভিন্ন দলের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো নিজেদের দাবি-দাওয়া বিসিবির কাছে তুলে ধরেছিল। বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজি আক্ষেপ করেছিল, বিপিএলে অংশ নিয়ে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এখন পর্যন্ত কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজিই এ টুর্নামেন্ট থেকে আর্থিকভাবে লাভের মুখ দেখতে পায়নি। তাই এ আর্থিক ক্ষতি পুষিয়ে ওঠার জন্য ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো বিসিবির কাছে টুর্নামেন্টের লাভের একটি অংশ দাবি করে। কিন্তু কোনো দাবিই মানেনি দেশের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থাটি। সেই ধারাবাহিকতায় গতকাল বিসিবি সভাপতি সিদ্ধান্ত দিলেন, আসছে টুর্নামেন্টের সপ্তম আসরের আয়োজক বিসিবি, ‘কোনোভাবেই ওদের দাবি-দাওয়া মানা সম্ভব নয়। রেভিনিউ শেয়ার কোনোভাবেই সম্ভব নয়।’
বিপিএলের সপ্তম আসরে সাতটি দল একই থাকলেও তাদের নামে আসতে পারে বদল এমন আভাসই দিয়েছেন নাজমুল হাসান, ‘এটা (দলের নাম) স্পন্সরের ওপর নির্ভর করবে। তবে আমরা চেষ্টা করব ঠিক (আগেরবারের মতো) রাখতে। কিছু না হলে ঢাকা, খুলনা এসব নাম তো থাকবে। আগের নাম রাখারই চেষ্টা হবে। কারণ, এটি (ফরম্যাট) পরের বছর নাও থাকতে পারে।’
আগের আসরের সাত দলকে নিয়ে নির্ধারিত সূচিতে বিপিএলের সপ্তম আসর শুরু হবে আগামী ৬ ডিসেম্বর। তার আগে ৩ ডিসেম্বর হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান।
এবারের বিপিএল বিসিবির আয়োজনে হচ্ছে বলেই ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে জেগেছে শঙ্কা: হারিয়ে যাবে না তো এ টুর্নামেন্ট!

 

সর্বশেষ..