প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

নোয়াখালী নার্সিং কলেজের ৯১ শিক্ষার্থী কভিডে আক্রান্ত

 প্রতিনিধি, নোয়াখালী:নোয়াখালী নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি কলেজের ৯১ জন শিক্ষার্থী কভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। এতে শ্রেণিকক্ষে ক্লাস নেয়া বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে প্রতিষ্ঠানটিতে। তবে এর পরিবর্তে অনলাইনে ক্লাস নেয়া হচ্ছে।

নোয়াখালী সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার জানান, গত সোমবার থেকে জেলার নোয়াখালী নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি কলেজের ৯১ জন শিক্ষার্থী কভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। একজন শনাক্ত হওয়ার পরই সবার কভিড টেস্ট করালে আরও ৯০ জন শিক্ষার্থীর কভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

নোয়াখালী নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কলেজের ইনস্ট্রাক্টর (ইনচার্জ) খালেদা খানম জানান, ‘গত ৩ জানুয়ারি থেকে সাত দিনের ছুটি নিয়ে শিক্ষার্থীরা বাড়িতে যায়। ছুটি শেষে বাড়ি থেকে শিক্ষার্থীরা কলেজে ফিরলে গত সোমবার আমি তাদের ক্লাসে যাই। ক্লাসে যাওয়ার পর দেখি কয়েক জন ছাত্রী কাশি দিচ্ছে। তখন আমি তাদের বললাম তোমাদের কাশি দেখতেছি। কারও কি জ্বর আছে বা গলা ব্যথা এমন কিছু আছে। তখন একজন শিক্ষার্থী আমাকে জানায় তার প্রচণ্ড গলা ব্যথা, জ্বরও আছে, আরও একজন জানায় তার দু’দিন থেকে জ্বর। বাকি শিক্ষার্থীরা জানায় তাদের কাশি আছে। তবে এছাড়া তেমন কোনো সমস্যা নেই। তাৎক্ষণিক আমি দুজন শিক্ষার্থীকে কভিড টেস্ট দেয়ার জন্য ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠাই। ওই দুজনের মধ্যে একজনের কভিড পজিটিভ আসে। এরপরের দিন আরও ৫৫ জন শিক্ষার্থী নমুনা পরীক্ষা দিলে তাদের মধ্যে ১১ জনের কভিড পজিটিভ আসে। এরপর বুধবার ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের কভিড ইউনিটের কর্মকর্তারা কলেজে এসে বাকি শিক্ষার্থীদের নমুনা নিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার হাসপাতাল থেকে জানানো হয় আরও ৮০ জন শিক্ষার্থীর কভিড পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে।’

ইনচার্জ খালেদা খানম জানান, ‘কভিড আক্রান্ত ৯১ জন শিক্ষার্থীর ৮-১০ জন শিক্ষার্থী বাড়ি ফিরে গেছে। এখনও ৮০ শিক্ষার্থী কলেজের হোস্টেলে অবস্থান করছে। আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছে, ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সাইন্স, ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি এ দুটি ব্যাচের প্রথম বর্ষের ২৮ জন, দ্বিতীয় বর্ষের ৪০ ও তৃতীয় বর্ষের ২৩ জন শিক্ষার্থী। আক্রান্ত শিক্ষার্থীদের শরীরে কভিডের কিছু লক্ষণ থাকলেও সবাই এখন অনেকটা ভালো আছেন। তাদের মধ্যে ১০ জন বাড়িতে এবং ৮০ জন শিক্ষার্থী কলেজ হোস্টেলে হোমকোয়ান্টাইনে রয়েছেন।’