সুস্বাস্থ্য

পছন্দসই কাপড়ের মাস্ক ব্যবহারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা

শেয়ার বিজ ডেস্ক: মাস্ক ছাড়া বাইরে বেরোনো এখন গুরুতর অপরাধ। যে হারে সংক্রমণ এবং মৃত্যু বেড়ে চলেছে, সেখানে মাস্ক এখন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মধ্যে একটি। কিন্তু করোনা যেভাবে শক্তি বাড়িয়েছে, ডবল মিউটেন্ট করেছে, এরপর কাপড়ের মাস্ক নাকি সার্জিক্যাল মাস্ক, কোনটা আপনাকে সংক্রমণ থেকে রক্ষা করবে?

সার্জিকাল মাস্ক পরতে পারেন না অনেকে। ত্বকের সমস্যা থেকে শ্বাসকষ্ট একাধিক সমস্যা হয় তাদের। সেক্ষেত্রে তারা বেছে নেন কাপড়ের মাস্ক। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে তাদের জন্য বিশেষ কিছু সতর্কতা মেনে চলার পরামর্শ দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

#      কাপড়ের মাস্ক ব্যবহারের সময় হাত খুব ভালো করে স্যানিটাইজ করে নিন।

#      মাস্ক পরা বা খোলার সময় মাস্ক ধরার আগে হাত ভালো করে পরিষ্কার করে নিন।

#      মাস্কে বড় কোনো ছিদ্র না যাতে না থাকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

#      কাপড়ের মাস্কে মুখ, নাক এবং থুতনি যেন সম্পূর্ণ ঢাকা থাকে।

গরমের তীব্রতায় অনেকে মাস্ক মুখে রাখতে পারেন না অনেকে। মাস্ক নয় গলা সামলায়, নয় ঠোঁট, কারোর বা আবার কানে ঝোলে। কিন্তু এই যখন-তখন মাস্কে হাত দিতে না করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। মাস্ক খোলা বা আলগা করার ইচ্ছা হলে দড়ি ধরে বন্ধনি হালকা করুন। অনেকক্ষণের জন্য বাইরে বের হলে, কাছে অতিরিক্ত মাস্ক রাখুন। বাড়িতে ফিরতেই মাস্ক ধুয়ে ফেলুন।

সার্জিক্যাল মাস্ক একবার ব্যবহার করুন। কাপড়ের মাস্কের দুটি স্তরের মাঝে পলিপ্রোলাইনের মতো কাপড় থাকলে ভালো। এটি ফিল্টার হিসেবে ভালো কাজ করবে। মুখ থেকে নির্গত ড্রপলেটস দ্রুত শুষে নিতে পারে সুতির কাপড়। কিন্তু বাইরের দিকটা যদি পলিয়েস্টারের হয় তাহলে আরও ভালো। সুতরাং দ্বিতীয় করোনার ঢেউয়ে মাস্ক কেনার সময় সতর্ক থাকুন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..