কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

পতন দিয়ে শুরু সপ্তাহের প্রথম দিনের লেনদেন

নিজস্ব প্রতিবেদক: সপ্তাহের প্রথম দিন গতকাল উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে সূচকের পতন দিয়ে লেনদেন শুরু হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বেশিরভাগ কোম্পানির দরপতনে সব সূচকের পতন হয়, সেইসঙ্গে কমেছে লেনদেন। দর বেড়েছে ২৫ শতাংশ কোম্পানির, কমেছে ৬০ শতাংশ কোম্পানির। গতকাল লেনদেনের শুরুতেই সূচকের উত্থান হয়। তবে ২০ মিনিটের মাথায় বিক্রির চাপ শুরু হলে সূচকে পতন নেমে আসে। মাঝে দু-একবার ওঠার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। এরপর বিক্রির চাপে সূচক ধীরে ধীরে নেমে যেতে থাকে। শেষ পর্যন্ত প্রধান সূচকের ২১ পয়েন্ট পতন হয়। বাকি দুই সূচকেরও পতন হয়। অন্যদিকে চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) একই চিত্র লক্ষ করা গেছে।
বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২১ দশমিক ১৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৪২ শতাংশ কমে চার হাজার ৯১৬ দশমিক ৬৮ পয়েন্টে অবস্থান করে।
ডিএসইএস বা শরিয়াহ্ সূচক দুই দশমিক ২৫ পয়েন্ট বা দশমিক ১৯ শতাংশ কমে এক হাজার ১৩৪ দশমিক ১০ পয়েন্টে অবস্থান করে। আর ডিএস৩০ সূচক সাত দশমিক ৫৬ পয়েন্ট বা দশমিক ৪৩ শতাংশ কমে এক হাজার ৭৪৭ দশমিক ৬৭ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন এক হাজার ৫৬২ কোটি টাকা কমে দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৭১ হাজার ১৭২ কোটি ৬০ লাখ টাকা। ডিএসইতে লেনদেন হয় ৩০৭ কোটি ২২ লাখ এক হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৩২৮ কোটি ৬৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে ২১ কোটি ৪১ লাখ টাকা। এদিন ১০ কোটি ১৪ লাখ ৬১ হাজার ২৭০টি শেয়ার ৯৯ হাজার ৮০৬ বার হাতবদল হয়। লেনদেন হওয়া ৩৫৪ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৯৯টির, কমেছে ২১৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫১টির দর।
গতকাল টাকার অঙ্কে লেনদেনের শীর্ষে উঠে আসে ন্যাশনাল টিউবস। কোম্পানিটির ২৫ কোটি ৭১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। দর বেড়েছে ১৭ টাকা ২০ পয়সা। এর পরে বীকন ফার্মার ১১ কোটি ৪০ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে ৩০ পয়সা। স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকের ১০ কোটি ৯৪ লাখ টাকা লেনদেন হয়। দর কমেছে ৪২ টাকা ৩০ পয়সা। এসইএমএল এফবিএসএল গ্রোথ ফান্ডের সাড়ে সাত কোটি টাকা লেনদেন হয়। দর পতন হয় এক টাকা ৮০ পয়সা। ওয়াটা কেমিক্যালের ছয় কোটি ৬৭ লাখ টাকা লেনদেন হয়, দর বেড়েছে তিন টাকা। এছাড়া বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্লসের ছয় কোটি ৬৪ লাখ টাকা ও মুন্নু জুট স্টাফলার্সের ছয় কোটি ৩২ লাখ টাকা লেনদেন হয়। সামিট পাওয়ারের ছয় কোটি টাকার, এটলাস বাংলাদেশের সোয়া পাঁচ কোটি টাকার ও সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্সের পৌনে পাঁচ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।
প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে দরবৃদ্ধির শীর্ষে উঠে আসে ন্যাশনাল টিউবস। আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ড মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ানের দর ৯ দশমিক ৬১ শতাংশ, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজের দর ৯ দশমিক ০৬ শতাংশ, সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজের দর আট দশমিক ৭১ শতাংশ, এনসিসিবিএল মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ানের দর সাত দশমিক ৬৯ শতাংশ, উসমানিয়া গ্লাসের দর ছয় দশমিক ৯২ শতাংশ, প্রাইম টেক্সটাইলের দর ছয় দশমিক ৬১ শতাংশ ও সিভিও পেট্রোকেমিক্যালের দর পাঁচ দশমিক ৯৪ শতাংশ ও ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিংয়ের দর পাঁচ দশমিক ২০ শতাংশ ও স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্সের দর পাঁচ শতাংশ বেড়েছে।
সিএসইতে গতকাল সিএসসিএক্স মূল্যসূচক ৩৫ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৯ শতাংশ কমে ৯ হাজার ৮৬ দশমিক ৯৩ পয়েন্টে এবং সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৫৬ দশমিক ৪৩ পয়েন্ট বা দশমিক ৩৭ শতাংশ কমে ১৪ হাজার ৯৬৬ পয়েন্টে অবস্থান করে। গতকাল সর্বমোট ২৫০টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬৯টির, কমেছে ১৪৮টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৫টির দর।
সিএসইতে এদিন ১২ কোটি ৩৬ লাখ ৯৩ হাজার ৬০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট লেনদেন হয়। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ১৫ কোটি ১১ লাখ ৬০ হাজার ১৩০ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। এ হিসেবে লেনদেন কমেছে দুই কোটি ৭৪ লাখ টাকা। সিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে অবস্থান করে উত্তরা ব্যাংক। কোম্পানিটির তিন কোটি তিন লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়।

সর্বশেষ..