সারা বাংলা

পদ্মায় অবৈধভাবে বালি উত্তোলনের অভিযোগ

প্রতিনিধি, মুন্সীগঞ্জ: মুন্সীগঞ্জ সদর ও টঙ্গিবাড়ী উপজেলায় পদ্মা নদীতে অবৈধভাবে বালি উত্তোলনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। যা ড্রেজারে উত্তোলন করে ট্রলারের মাধ্যমে সরবরাহ করা হচ্ছে। শিলই ইউপি চেয়ারম্যান লিটন ব্যাপারীর ভাই ও সাবেক ইউপি সদস্য ইসমাইল ব্যাপারী এই অবৈধ বালি উত্তোলন করছেন বলে জানা গেছে। এর ফলে সদরের ঢ়াকিরকান্দি ও টঙ্গিবাড়ীর দিঘিরপাড় অংশে ভাঙনের আশঙ্কা করা হচ্ছে।
জানা যায়, প্রতিদিন পদ্মা নদীর দুটি পয়েন্টে ভোর থেকে ড্রেজারের মাধ্যমে বালি উত্তোলন করা হচ্ছে। চলতি বছরের শুরুতে পদ্মায় অবৈধ বালি উত্তোলনকালে উপজেলা প্রশাসন অভিযান চালিয়ে একটি ড্রেজার আগুনে পুড়িয়ে বিনষ্ট করে। এরপর বেশ কিছুদিন সেখানে বালি উত্তোলন বন্ধ থাকলেও সম্প্রতি আবারও অবৈধভাবে উত্তোলন শুরু করেন শিলই ইউপি চেয়ারম্যানের ভাই ও সাবেক ইউপি সদস্য ইসমাইল ব্যাপারী।
বালি উত্তোলনের কথা স্বীকার করে শিলই ইউনিয়নের ঢ়াকিরকান্দি গ্রামের ইসমাইল ব্যাপারী জানান, কয়েক দিন যাবৎ সরকারি কাজ ও নিজের বাড়ির প্রয়োজনে ড্রেজারের মাধ্যমে বালি উত্তোলন করেছেন।
এ প্রসঙ্গে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারুক আহম্মেদ জানান, বছরখানেক আগে অবৈধ বালি উত্তোলনের খবর পেয়ে শিলই ইউনিয়ন সংলগ্ন পদ্মায় অভিযান চালিয়ে ড্রেজার ও বিপুল পরিমাণ পাইপ জব্দ করা হয়। পরে ওই ড্রেজার ও পাইপ পুড়িয়ে নষ্ট করে দেওয়া হয়। এরপর থেকে সেখানে বালি উত্তোলন বন্ধ থাকে। তবে ফের উত্তোলন শুরু হয়ে থাকলে প্রশাসন তা খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে।

সর্বশেষ..