দিনের খবর সারা বাংলা

পদ্মা সেতুতে আজ বসছে ৩৪তম স্প্যান

প্রতিনিধি, মুন্সীগঞ্জ: আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে ও কারিগরি জটিলতা না দেখা দিলে আজ রোববার পদ্মা সেতুতে বসানো হবে ৩৪তম স্প্যান টু-এ। সেতুর মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে ৭ ও ৮ নম্বর পিলারের ওপর ৩৪তম স্প্যানটি বসানো হবে। এতে দৃশ্যমান হতে চলেছে সেতুর পাঁচ হাজার ১০০ মিটার অর্থাৎ ৫.১ কিলোমিটার অংশ। ৩৪তম স্প্যানটি মডিউল নম্বর-২ এর এক নম্বর স্প্যান।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান মো. আবদুল কাদের জানান, গতকাল শনিবার বিকাল সাড়ে ৩টার সময় মুন্সীগঞ্জের মাওয়া কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যরে ধূসর রংয়ের ৩৪তম স্প্যানটি ভাসমান ক্রেন ‘তিয়ান-ই’ দিয়ে তুলে নিয়ে স্প্যানটি নির্ধারিত পিলারের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, বৈরী আবহাওয়া থাকায় পদ্মায় তীব্র বাতাস বইছে। আলো স্বল্পতাও রয়েছে। যার কারণে রোববার সকালে বসানো হবে স্পেনটি। আবহাওয়াসহ সবকিছু অনুকূলে থাকলে স্প্যানটি সেতুর ৭ ও ৮ নম্বর পিলারের ওপর বসিয়ে দেওয়া হবে।

পদ্মা সেতুর প্রকৌশলী সূত্রে আরও জানা গেছে, ৩৪তম স্প্যানের পরে আগামী ৩০ অক্টোবর ২ এবং ৩ নম্বর পিলারের ওপর ৩৫তম স্প্যান, ৪ নভেম্বর ৩৬তম স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে। আর আগামী ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে সব স্প্যান বাসানোর নির্দেশনা রয়েছে সেতু সচিবের। এর আগে সর্বশেষ ১৯ অক্টোবর সেতুতে বসানো হয়েছিল ৩৩তম।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটিতে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয় পদ্মা সেতু। এরপর একে একে বসানো হয় ৩৩টি স্প্যান। এতে দৃশ্যমান হয়েছে সেতুর চার হাজার ৯৫০ মিটার অংশ। ৪২টি পিলারে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যরে ৪১টি স্প্যান বসিয়ে ছয় দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু নির্মাণ করা হবে। মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদীশাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন। দুটি সংযোগ সড়ক ও অবকাঠামো নির্মাণ করেছে বাংলাদেশের আবদুল মোমেন লিমিটেড। এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..