প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

পদ্মা সেতুর স্মারক নোট উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে ১০০ টাকা মূল্যমানের স্মারক নোট উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল শনিবার মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে আয়োজিত পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের ছাড় করা নোট উম্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী। তার আগে একই অনুষ্ঠানে গভর্নর ফজলে কবির প্রধানমন্ত্রীর হাতে ১০০ টাকা মূল্যমানের স্মারক নোট তুলে দেন।

স্মারক মুদ্রাটি উদ্বোধনের পর আজ (রোববার) বাজারে ছাড়ছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এ নোট আজ থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের শুধু মতিঝিল কার্যালয়ে পাওয়া যাবে। পরে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অন্যান্য শাখা কার্যালয়ে পাওয়া যাবে। আর ১০০ টাকা মূল্যমানের স্মারক নোটটির জন্য পৃথকভাবে বাংলা ও ইংরেজি লিটারেচার-সংবলিত ফোল্ডার প্রস্তুত করা হয়েছে। ফোল্ডার ছাড়া শুধু খামসহ স্মারক নোটটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫০ টাকা এবং ফোল্ডার ও খামসহ স্মারক নোটটির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২০০ টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে ১০০ টাকার মূল্যমানের স্মারক নোট ছাড় করে দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক। নোটের ডিজাইন ও নিরাপত্তাবৈশিষ্ট্যের বিষয়ে বলা হয়েছেÑবাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির স্বাক্ষরিত এ স্মারক নোটের সম্মুখভাগের বাঁ পাশে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিকৃতি এবং ব্যাকগ্রাউন্ডে ‘পদ্মা সেতু’র ছবি মুদ্রিত রয়েছে। আর নোটের উপরিভাগে সামান্য ডানে নোটের শিরোনাম ‘জাতির গৌরবের প্রতীক পদ্মা সেতু’ লেখা রয়েছে। তাছাড়া ওই নোটের ওপরে ডান কোণে স্মারক নোটের মূল্যমান ইংরেজিতে ১০০, নিচে ডান কোণে মূল্যমান বাংলায় ১০০ এবং উপরিভাগে মাঝখানে ‘একশত টাকা’ লেখা রয়েছে। আর নোটের পেছন ভাগে ‘পদ্মা সেতু’র পৃথক একটি ছবি সংযোজন করা হয়েছে।

নোটের উপরিভাগে ডান দিকে নোটের শিরোনাম ইংরেজিতে ‘পদ্মা ব্রিজ-দ্য সিম্বল অব ন্যাশন্যাল প্রাইড ওয়ান হানড্রেড টাকা’ লেখা রয়েছে। এ ছাড়া নোটের ওপরে বাঁ কোণে ও নিচের ডান কোণে মূল্যমান ইংরেজিতে ‘১০০’ এবং নিচে বাঁ কোণে বাংলায় ‘১০০’ লেখা রয়েছে। আর নোটের নিচে মাঝখানে ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের মনোগ্রাম’ এবং এর বাঁ পাশে ইংরেজিতে ‘বাংলাদেশ ব্যাংক’ ও ডান পাশে ‘ওয়ান হানড্রেড টাকা’ লেখা রয়েছে।