প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

পদ্মা সেতু দেখে উচ্ছ্বসিত বিদেশি কূটনীতিকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক: পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার সময় সেতুটি দেখে উচ্ছ্বাস ও আনন্দ প্রকাশ করেছেন বিদেশি কূটনীতিকরা। এই সেতু বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায় বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে তারা অভিমত প্রকাশ করেন।

গতকাল পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন ঢাকায় নিযুক্ত বিদেশি কূটনীতিকরা। বিভিন্ন দূতাবাস ও হাইকমিশনের ৫০ জনের বেশি কূটনীতিক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের নেতৃত্বে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, চীন, জাপান, ভারত, রাশিয়া, মালয়েশিয়া, সুইজারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের কূটনীতিকরা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে পদ্মা সেতু পরিদর্শন করেন।

ঢাকায় নিযুক্ত রাশিয়ার চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স একেতেরিনা সেমেনোভা বলেন, পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধনে উপস্থিত থাকতে পেরে আমি সৌভাগ্যবান। বাংলাদেশি বন্ধুদের আন্তরিক অভিনন্দন!

সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত নাথালি চুয়ার্ড পদ্মা সেতু পার হয়ে টুইটারে লেখেন, অভিনন্দন বাংলাদেশ! আজ আমরা প্রথমবার পদ্মা সেতু পার হলাম। ছয় কিলোমিটারের বেশি দীর্ঘ এই সেতু এই দেশ ও অঞ্চলে আরও সংযোগ, অন্তর্ভুক্তি ও উন্নয়নের পথে একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক।

নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত অ্যানে ভান লিউইন পদ্মা সেতু দেখার পর টুইটারে প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এই অসাধারণ কাজটি সম্পন্ন করার জন্য বাংলাদেশকে অভিনন্দন! বাংলাদেশের জন্য সত্যিই একটি মহান ও ঐতিহাসিক দিন!

ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জি মিং পদ্মা সেতু পরিদর্শনের পর উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বাংলাদেশের জনগণকে অভিনন্দন জানান। একই সঙ্গে তিনি পদ্মা সেতু নির্মাণে যুক্ত চীনা প্রকৌশলীদের নিয়ে সেতু ঘুরে দেখেন।

জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধনের মাধ্যমে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের একটি নতুন যুগে যাত্রা করল।

ঢাকায় নিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার জাভেদ প্যাটেল টুইটারে এক প্রতিক্রিয়ায় জানান, পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পেরে সম্মানিত বোধ করছি। এই সেতু বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও মানুষের সংযোগের জন্য একটি উল্লেখযোগ্য মাইলফলক। এই বিস্ময়কর সেতু এ দেশের মানুষের দুর্দান্ত অর্জন।

ঢাকায় নিযুক্ত মালয়েশিয়ার হাইকমিশনার হাজনাহ হাশিম পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেন। এক বার্তায় তিনি বলেন, মালয়েশিয়া গর্বের সঙ্গে উল্লেখ করছে, বাংলাদেশ সরকার মালয়েশিয়াকে এমন একটি দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে, যেখান থেকে পদ্মা সেতু নির্মাণে বিদেশি বিশেষজ্ঞরা নিযুক্ত ছিলেন।

গতকাল শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেদের সক্ষমতার প্রতীক পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করেন। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের মাধ্যমে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১টি জেলার সঙ্গে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের অপরাপর অংশের সংযোগ ও যোগাযোগ স্থাপিত হলো। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে মাওয়া থেকে জাজিরাÑদুই প্রান্তেই আয়োজন করা হয় বিশেষ অনুষ্ঠানের।