করপোরেট টক

ইন্টারন্যাশনাল ফুড কোর্ট সাহরি-ইফতারে অনন্য

সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রয়োজন নিরাপদ ও পুষ্টিসম্পন্ন খাদ্য। তাই অন্যান্য সময়ের মতো রমজানেও স্বাস্থ্যসচেতন মানুষের কাছে সমান জনপ্রিয় অভিজাত চেইন রেস্টুরেন্ট ‘ইন্টারন্যাশনাল ফুড কোর্ট’। বিস্তারিত তুলে ধরেছেন শরিফুল ইসলাম পলাশ

পবিত্র রমজানে ক্রেতার জন্য ছাড়কৃত মূল্যে ইফতারের পসরা সাজিয়েছে ‘ইন্টারন্যাশনাল ফুড কোর্ট’। ধানমন্ডির সাতমসজিদ রোডে স্বনামখ্যাত বিদেশি চেইন শপ এটি। এখানে একই ছাদের নিচে মিলছে কানাডীয় কফি চেইন ‘সেকেন্ড কাপ কফি কোম্পানি’, মালয়েশিয়ার সি-ফুড ফ্র্যাঞ্চাইজি ‘দি ম্যানহাটান ফিশ মার্কেট’ ও আমেরিকান বার্গার ব্র্যান্ড ‘জনি রকেটস’-এর বিশ্বখ্যাত সব পণ্য। খাবারের মান ও ভিন্নধর্মী পরিবেশের কারণে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ইন্টারন্যাশনাল ফুড কোর্ট। অন্য সময়ের মধ্যে রমজানেও সমান জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। রমজান ঘিরে বিশেষ ছাড় গ্রাহকের আগ্রহ আরও বাড়িয়েছে। সে সঙ্গে বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে পেমেন্টেও আকর্ষণীয় ছাড় পাচ্ছেন ক্রেতা।
পাঁচতলা ভবনে ইন্টারন্যাশনাল ফুড কোর্টের অবস্থান। ভবনের দ্বিতীয় তলায় রয়েছে আমেরিকান প্রিমিয়াম বার্গার ব্র্যান্ড ‘জনি রকেটস’। বিভিন্ন ধরনের ক্ল্যাসিক বার্গারের সঙ্গে আমেরিকান ফ্রাইজ আর শেকস বার্গারপ্রেমীদের পছন্দের তালিকায় উঁচুতে স্থান করে নিয়েছে। রাজধানীর উত্তরা ও বনানীর পর এটি বাংলাদেশে জনি রকেটসের তৃতীয় শাখা। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত ক্রেতার পদচারণে মুখর থাকে।
রমজানে ক্রেতার জন্য বিশেষ ছাড় দিচ্ছে জনি রকেটস। সব ধরনের পণ্যের দাম কমিয়ে আনা হয়েছে। ২২৯ টাকায় ইফতারের প্যাকেজ এনেছে প্রতিষ্ঠানটি। এক পিস গ্রিল চিকেন স্যান্ডউইচ, এক পিস রকেট ফ্রাইড চিকেনসহ চারটি আইটেম দিয়ে ওই প্যাকেজ সাজানো হয়েছে। চার ধরনের প্যাকেজের মধ্যে মাত্র ৫৯৯ টাকায় দুজনের ইফতারের প্যাকেজ রেখেছে জনি রকেটস।
সুরম্য ভবনের তৃতীয় ও চতুর্থ তলায় হোম অব সি-ফুড ‘দি ম্যানহাটান ফিশ মার্কেট’। এখানে অতিথিদের জন্য বিশ্বখ্যাত ম্যানহাটান ফিশ অ্যান্ড চিপস, গার্লিক হার্ব মাসেলস ও স্বনামধন্য ম্যানহাটান ফ্লেমিং সি-ফুড প্ল্যাটার আমেরিকান স্টাইলের সঙ্গে পরিবেশন হচ্ছে। রাজধানীর বনানীর পর এটি বাংলাদেশে ম্যানহাটান ফিশ মার্কেটের দ্বিতীয় শাখা। এটিও পথচলার শুরু থেকে ক্রেতার পদচারণে মুখর। ম্যানহাটান ফিশ মার্কেটও রমজানে বিশেষ ছাড় দিচ্ছে। সাহরির জন্য ৩৯৯ টাকায় চার ধরনের প্যাকেজে খাবার দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।
ফুড কোর্টের সবচেয়ে আকর্ষণীয় স্থান এর ছাদ। এখানে রয়েছে কানাডিয়ান কফি ব্র্যান্ড ‘সেকেন্ড কাপ কফি’। এটি বাংলাদেশে ‘সেকেন্ড কাপ কফি’র তৃতীয় শাখা। এছাড়া ছাদে সাশ্রয়ী মূল্যে ব্রেকফাস্ট, স্ন্যাকস ও বিকালের নাস্তার ব্যবস্থা রয়েছে। পবিত্র রমজানে ক্রেতার জন্য সাশ্রয়ী মূল্যে ইফতারের পসরা সাজিয়েছে ‘সেকেন্ড কাপ কফি’। চিকেন, টোস্ট ব্রেড ও সালাদসহ ছয় ধরনের আইটেম নিয়ে ‘ইফতার প্যাকেজ’ সাজিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। আর প্রতি প্যাকেজের দাম রাখা হয়েছে ২৬০ টাকা। রমজানে প্রতিদিন বিকাল ৪টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ক্রেতা ছাড় করা মূল্যে ওই খাবার খেতে পারেন।
এদিকে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে খাবারের বিল পরিশোধের ক্ষেত্রেও বিশেষ ছাড় রয়েছে। ম্যানহাটান ফিশ মার্কেটের ফিশ অ্যান্ড চিপস ডোরি বা গ্রিলড ডোরি পাওয়া যাচ্ছে নিয়মিত মূল্যের চেয়ে ৩০০ টাকা কমে। ধানমন্ডির ম্যানহাটানের আউটলেটে ৭৮৪ টাকার ওই আইটেমগুলোর দাম পড়বে ৪৪৮ টাকা। একইভাবে জনি রকেটসের ৫৭০ টাকার প্যাকেজ ৩৭০ টাকায় ও ৪৬২ টাকার প্যাকেজ ২৬২ টাকায় মিলছে। বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে পেমেন্ট করলে সঙ্গে সঙ্গেই ছাড়ের অর্থ ফেরত পাবেন গ্রাহক।
উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের এপ্রিলে আনুষ্ঠানিকভাবে ইন্টারন্যাশনাল ফুড কোর্টের পথচলা শুরু। ফুড চেইন এশিয়া লিমিটেড তাদের তিনটি বিশ্বখ্যাত আন্তর্জাতিক চেইন রেস্তোরাঁর শাখা খোলে। কানাডিয়ান কফি চেইন ‘সেকেন্ড কাপ কফি কোম্পানি’, একটি মালয়েশিয়ান সি-ফুড ফ্র্যাঞ্চাইজি ‘দি ম্যানহাটান ফিশ মার্কেট’ ও বিখ্যাত আমেরিকান বার্গার ব্র্যান্ড ‘জনি রকেটস’ যেখানে এক ছাদের নিচে। আর সঙ্গে ‘কিডিজ ওয়ার্ল্ড’ নামে শিশুদের খেলাধুলার স্থানও রাখা হয়েছে।

শিশুদের জন্য…

ফুড কোর্টের পঞ্চম তলায় ‘কিডিজ ওয়ার্ল্ড’ নামে শিশুদের জন্য খেলার জায়গা রয়েছে। প্রশিক্ষিত কর্মীদলের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত বিভিন্ন রাইড ও খেলনায় শিশুরা এখানে খুঁজে পায় একটি সুন্দর মুহূর্ত। এ রমজানে শিশুদের জন্যও বাড়তি ছাড় দিচ্ছে ইন্টারন্যাশনাল ফুড কোর্ট, যা শিশুর আনন্দকে নতুন মাত্রা এনে দিয়েছে। তাই এ রমজানে স্বজন-বন্ধু-পরিজনকে নিয়ে ইফতারের জন্য আপনিও বেছে নিতে পারেন ইন্টারন্যাশনাল ফুড কোর্টকে, যা আপনাকে নতুন এক অভিজ্ঞতা দেবে।

সাহরি-ইফতারে ছাড় ও ক্যাশব্যাক বাড়তি পাওনা

অল্প সময়ে গ্রাহকের আস্থা ও জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। একই ছাদের নিচে সেকেন্ড কাপ কফি, জনি রকেটস ও ম্যানহাটান ফিশ মার্কেটের মতো বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ড রয়েছে।
ভার্সিটিতে ক্লাস-পরীক্ষার চাপে যখনই সময় পাই, তখনই বন্ধুদের নিয়ে এখানে আসি, বার্গার খাই আর আড্ডা দিই। পরিবেশটাও বেশ ভালো। সুন্দর, ছিমছাম, সাজানো-গোছানো। এর মধ্যে রমজানে ইফতারের জন্য ছাড় ও বিকাশ অ্যাপের পেমেন্টে ক্যাশব্যাক আমার জন্য বাড়তি পাওয়া।


সাফওয়ান ইবনে আমির, শিক্ষার্থী, ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি

আমি কফি খেতে ভীষণ পছন্দ করি। সপ্তাহে একদিন হলেও সেকেন্ড কাপ কফিতে আসি। এখানে ছাদের খোলামেলা পরিবেশে স্বজন ও বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটাই। বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ডের কফির পাশাপাশি এখানকার পরিবেশটিও উপভোগ করি। রমজানে সব প্রতিষ্ঠানই বিশেষ ছাড় দেয়। সেকেন্ড কাপ কফির ছাড়টা বাড়তি উপলক্ষ।
সামিন ইকবাল পাভেল, বেসরকারি চাকরিজীবী

আমি ম্যানহাটান ফিশ মার্কেটের নাম শুনেছি। কিন্তু সময়ের অভাবে আগে আসা হয়নি। বন্ধুদের কাছ থেকে জেনে তাদের সঙ্গে এসেছি। মালয়েশিয়ার বিখ্যাত সি-ফুডের গল্প শুনেছি, আজ তা খাওয়ার সৌভাগ্য হলো। খাবারের মানের মতোই এখানকার পরিবেশ, পরিবেশন পদ্ধতিও আলাদা। দাম খুব বেশি নয়, ক্যাশব্যাকও পেয়েছি। সব মিলিয়ে সন্ধ্যাটা ভালো কেটেছে। সুযোগ পেলে আবারও আসব।
রাসেল আহমেদ সজল, বেসরকারি চাকরিজীবী

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..