প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

পর্যটন খাতে ২.৭১ ট্রিলিয়ন বাথ আয়ের লক্ষ্য থাইল্যান্ডের

শেয়ার বিজ ডেস্ক: ২০১৭ সালে পর্যটন খাতে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা বাড়িয়েছে থাইল্যান্ড। চলতি বছর দুই দশমিক ৭১ ট্রিলিয়ন বাথ আয়ের লক্ষ্য নিয়েছে দেশটি। সদ্য বিদায়ী বছরে এ খাতে আয়ের পূর্বাভাস ছিল দুই দশমিক পাঁচ ট্রিলিয়ন বাথ। অর্থাৎ গত বছরের তুলনায় চলতি বছর আট দশমিক দুই শতাংশ বেশি আয়ের প্রত্যাশা থাইল্যান্ডের পর্যটন শিল্পের। খবর ব্যাংকক পোস্ট।

তথ্যমতে, মোট আয়ের এক দশমিক ৭৮ ট্রিলিয়ন বাথ আসবে বিদেশি পর্যটক থেকে। আগের বছরের তুলনায় এটি আট দশমিক পাঁচ শতাংশ বেশি। আর দেশি পর্যটক থেকে বাকি ৯৩০ বিলিয়ন বাথ আয় হবে দেশটির। থাইল্যান্ডের পর্যটন ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় বলছে, চলতি বছর কম্বোডিয়া, লাওস, মিয়ানমার ও ভিয়েতনামের (সিএলএমভি) পর্যটকসংখ্যা বাড়বে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। ফলে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা আগের বছরের তুলনায় বাড়ানো হয়েছে। অর্থনীতির তুলনামূলক উন্নতি হওয়ায় সিএলএমভি থেকে থাইল্যান্ড চলতি বছর তিন দশমিক ২৫ মিলিয়ন পর্যটক প্রত্যাশা করছে। আগের বছরের তুলনায় এটি ১৭ দশমিক চার শতাংশ বেশি। এ বাজার থেকেই ৯৬ দশমিক সাত বিলিয়ন বাথ বা মোট আয়ের প্রত্যাশা করছে দেশটি, আগের বছরের তুলনায় এ আয় ২০ শতাংশ বেশি।

পর্যটন ও ক্রীড়ামন্ত্রী কোবকার্ন ওটানাভ্রাঙ্কুল বলেন, ‘চলতি বছর আমরা এশিয়া ও ইউরোপের পর্যটকদের বেশি প্রত্যাশা করছি।’ তবে চীনের অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়ায় দেশটি থেকে পর্যটক কম হবে বলে মনে করেন তিনি।

ইউরোপের পর্যটকরা চলমান অস্থিতিশীলতায় তুরস্ক ভ্রমণ না করে থাইল্যান্ড ভ্রমণ করতে পারে বলেও প্রত্যাশা করা হচ্ছে। ফলে দেশটির পর্যটন খাতে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। মন্ত্রী বলেন, ‘ইউরোপ ও এশিয়ার পর্যটকরা আমাদের পর্যটন খাতে লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সাহায্য করবে। আশা করা হচ্ছে চলতি বছর দুই দশমিক ৭১ ট্রিলিয়ন বাথ আয় হবে। ’