প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

পাঁচ প্রতিষ্ঠানকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন মার্কেটে মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করা, খাদ্যদ্রব্যে অননুমোদিত রং ব্যবহার, অপরিষ্কার ও নোংরা পরিবেশে খাদ্য উৎপাদন এবং মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্যের গায়ে নতুন মেয়াদ দিয়ে বিক্রির জন্য সংরক্ষণের দায়ে পাঁচ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়  গতকাল চট্টগ্রাম মহানগরীর ডাবলমুরিং ও খুলশী থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে পাঁচটি প্রতিষ্ঠানকে ‘ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯’-এর বিভিন্ন ধারায় মোট এক লাখ ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযানে খুলশী থানা এলাকায় বনফুলের একটি আউটলেটকে মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করার দায়ে পাঁচ হাজার টাকা, আগ্রাবাদ এলাকার স্বপ্ন আউটলেটকে মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করা এবং পচা আলু বিক্রির জন্য সংরক্ষণ করার দায়ে ৩০ হাজার টাকা, ফার্মভিলে আগ্রাবাদ আউটলেটকে মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য ও মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্যের গায়ে নতুন মেয়াদ দিয়ে বিক্রির জন্য সংরক্ষণের দায়ে ৫০ হাজার টাকা, মৌসুমি স্টোরের বিভিন্ন পণ্যে আমদানিকারকের স্টিকার না থাকায় ১০ হাজার টাকা এবং বনফুল চৌমুহনী, আগ্রাবাদ আউটলেটকে মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্যে নতুন মেয়াদ সংযোজন করে বিক্রির জন্য সংরক্ষণের দায়ে ৬০ হাজার টাকা জরিমানা আরোপ ও আদায় করা হয়। সিএমপির একটি টিমের সহায়তায় এসব অভিযান পরিচালনা করা হয়।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক মোহাম্মদ ফয়েজ উল্লাহ, সহকারী পরিচালক নাসরিন আক্তার, সহকারী পরিচালক মো. আনিছুর রহমান ও চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. দিদার হোসেন অভিযান পরিচালনা করেন।

জনস্বার্থে এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানান জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আনিছুর রহমান।