প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

পাকিস্তানে স্টেশনে পেট্রোল নেই, এটিএমে টাকা নেই : ক্ষোভ হাফিজের

ক্রীড়া ডেস্ক: রীতিমতো উত্তাল পাকিস্তানের রাজনৈতিক দৃশ্যপট। রাষ্ট্রক্ষমতা নিয়ে পাকিস্তানে চলছে লড়াই। দেশটিতে অনাস্থা ভোটে ইমরান খানকে হারিয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন শাহবাজ শরিফ। তবে হাল ছাড়েননি ইমরান খান। ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিবিদ বনে যাওয়া এই তারকা নিরপেক্ষ ও অবাধ নির্বাচনের জন্য আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। তার রাজনৈতিক দল তেহরিক-ই-ইনসাফ বসে নেই। চলছে কর্মসূচি। এসব কারণেই পাকিস্তানের অবস্থা অস্থিতিশীল। এ অবস্থায় দুই রাজনীতিবিদ ইমরান-শাহবাজকে প্রশ্ন করেছেন পাকিস্তানের ক্রিকেটার মোহাম্মদ হাফিজ : জনগণ কেন ভোগাস্তিতে থাকবে।

ইমরান খানের দল তেহরিক-ই-ইনসাফের সমর্থক গোষ্ঠীর ডাকা  আন্দোলনে মার্চ থেকে উত্তাল পরিস্থিতি এখন পাকিস্তানে। এ অবস্থায় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরীফের নেতৃত্বাধীন সরকার রীতিমতো সেনা মোতায়েন করেছে। এ অবস্থায় দেশটির লাহোরে দেখা দিয়েছে তীব্র অর্থ ও জ্বালানি সংকট। এমন পরিস্থিতির জন্য শেহবাজ শরীফ সরকার ও রাজনীতিবিদদের দায়ী করেছেন হাফিজ।

আস্থা ভোটে হেরে গিয়ে পদচ্যুত হওয়া ইমরান খান তার সমর্থকদের দাবি-দাওয়া আদায়ের আগ পর্যন্ত ইসলামাবাদে অবস্থান করতে নির্দেশ দিয়েছেন। তার এ আহ্বানের পর ইসলামাবাদে ঢোকা ও বের হওয়ার রাস্তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা, যেমন : সংসদ, সরকারি দপ্তর, কূটনৈতিক মিশন বা দপ্তরে প্রবেশের রাস্তাগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

ইসলামাবাদ-লাহোরসহ পাকিস্তানের কিছু শহরে নানা রকম সংকট দেখা দিয়েছে। সেই সংকট সবার সামনে তুলে এনেছেন ক্রিকেট অলরাউন্ডার হাফিজ। বিশেষ করে জ্বালানি তেল ও নগদ টাকার সংকটের কথা তুলে ধরেছেন এই ক্রিকেটার। এক টুইটে হাফিজ লিখলেন : ‘লাহোরের কোনো পেট্রোল স্টেশনে পেট্রোল নেই! এটিএম মেশিনে টাকা নেই! রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের কারণে সাধারণ মানুষ কেন ভুগবে?’

এই টুইট হাফিজ ট্যাগ করেছেন বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান খান ছাড়াও শীর্ষস্থানীয় রাজনীতিবিদ শাহবাজ, মরিয়ম নওয়াজ শরীফ ও বিলওয়াল ভুট্টো জারদারিকে। এ অবস্থায় জনগণের ভোগান্তির পথ ধরে রাজনীতিবিদরা সরে আসবেন কি না, সেটা সময়ই বলে দেবে।