সারা বাংলা

পাটকল শ্রমিকদের ইটপাটকেলে নরসিংদীতে আহত ২০ ট্রেনযাত্রী

প্রতিনিধি, নরসিংদী: মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ৯ দফা দাবিতে ৭২ ঘণ্টার ধর্মঘটের শেষদিন বৃহস্পতিবারও নরসিংদীতে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিকরা প্রায় এক ঘণ্টা রেলপথ অবরোধ করে রাখেন। এ সময় ট্রেনে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে আহত হন প্রায় ২০ ট্রেনযাত্রী। পরে দুপুর ১২টার দিকে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। নরসিংদী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
পুলিশ জানায়, কাজে যোগ না দিয়ে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা থেকে শহরের তরোয়া এলাকায় রেলপথ অবরোধ করে ইউএমসি পাটকলের শ্রমিকরা। এ সময় রেললাইনে টায়ারে আগুন দিয়ে অবস্থান নিলে আটকা পড়ে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগ্রামী কর্ণফুলী এক্সপ্রেস। অবরোধের ফলে ঢাকা-সিলেট, ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-কিশোরগঞ্জ রেলপথে প্রায় এক ঘণ্টা বন্ধ থাকে সব ধরনের ট্রেন চলাচল। এ সময় শ্রমিকদের ছোড়া পাথরের আঘাতে প্রায় ২০ ট্রেনযাত্রী আহত হয়েছেন। ভাঙচুর করা হয় ট্রেনের জানালার কাচ। দুপুর ১২টার দিকে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের লোকেরা অবরোধকারী শ্রমিকদের সরিয়ে নেওয়ার হলে সব ধরনের ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।
নরসিংদী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দুজ্জামান জাানন, প্রায় পাঁচ হাজার শ্রমিকের একটি মিছিল তরোয়া এলাকায় রেললাইনে আগুন দিয়ে ট্রেন অবরোধের চেষ্টা করেছে। অল্প কয়েকটি জানালার কাচ ভাঙচুর করেছে। আমরা ঘটনার আধঘণ্টার মধ্যেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছি। ৪৫ মিনিটি অবরোধের পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।
আন্দোলনকারী শ্রমিক নেতারা জানান, শ্রমিকদের ন্যায্য দাবি আদায়ের লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে এ আন্দোলন। এরই মধ্যে শুধু মজুরি কমিশন পরীক্ষামূলক বাস্তবায়নে সরকারের পক্ষ থেকে বার্তা পাওয়া গেছে। তবে এতে শ্রমিকরা সন্তুষ্ট না হওয়ায় পুরো দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত শ্রমিকরা ঘরে ফিরে যাবে না। দাবি মানা না হলে পরবর্তীতে আরও কঠোর কর্মসূচি পালন করা হবে।
এর আগে গত মঙ্গলবার সকাল থেকে বাংলাদেশ পাটকল শ্রমিক লীগ ও সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদ দেশব্যাপী ৭২ ঘণ্টার অবরোধ-ধর্মঘট কর্মসূচির ডাক দেয়। দাবি বাস্তবায়ন না হলে আরও কঠোর কর্মসূচির হুশিয়ারি দেন শ্রমিক নেতারা।

 

সর্বশেষ..