পাঠকের চিঠি

পাঠকের চিঠি : ক্রিকেট ম্যাচ ফিক্সিং প্রস্তাবকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন

ক্রিকেট হলো বিশ্বের অন্যতম পছন্দনীয় একটি খেলার নাম। আর বাংলাদেশের ক্রিকেটের হƒদয়ের স্পন্দন হলেন সাকিব আল হাসান, অন্যায়ের কাছে মাথা নত না করাই ছিল যার প্রধান চ্যালেঞ্জ। বাংলাদেশের ক্রিকেট অঙ্গনের অন্যতম মুকুট হিসেবে পরিচিত সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে পরিচয়দানকারী এবং ক্রিকেটে বিশ্বের অন্যতম অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ছোট-বড় সবার প্রিয়।

সম্প্রতি বাংলাদেশের ক্রিকেট বোর্ডের কাছে কিছু দাবি-দাওয়া আদায়ের লক্ষ্যে অনশন করেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা, যার নেতৃত্ব দেন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। এই আন্দোলনের সুরাহা হওয়ার পরপরই নেতৃত্বদানকারী সাকিব আল হাসানের বিরুদ্ধে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ ওঠে। সেই অভিযোগে সাকিব আল হাসানের দুই বছরের শাস্তি হয়। অভিযোগের কথা স্বীকার করায় এক বছর মাফ হয়। সাকিবের এই অনাকাক্সিক্ষত অভিযোগ ও শাস্তি আমরা মেনে নিতে পারছি না। এ শাস্তি বাংলার ক্রিকেটপ্রেমীদের ভীষণ কাঁদিয়েছে। হতাশায় পড়ে গেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। তবে আমার প্রশ্নÑযার প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিতে আজ সাকিবের শাস্তি হলো, সেই জুয়াড়ির কি কোনো শাস্তি হবে না? কিংবা ম্যাচ ফিক্সিং করার প্রস্তাবকারীর ব্যাপারে আইসিসি’তে কি শাস্তির কোনো বিধান নেই? ক্রিকেটের ম্যাচ ফিক্সিং করার জন্য যার প্রস্তাবে সাকিব আল হাসানের শাস্তি হলো, সেই জুয়াড়ির শাস্তি চাই। যেহেতু আইসিসির কাছে প্রমাণিত হয়েছে, কে ছিল ম্যাচ ফিক্সিং করার প্রস্তাবকারী, তাই তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করতে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

আজিনুর রহমান লিমন

আছানধনী মিয়াপাড়া, ডিমলা, নীলফামারী

সর্বশেষ..