টেলকো টেক

পাবজি মোবাইল ই-স্পোর্টস ইভেন্ট গ্লোবাল চ্যাম্পিয়নশিপ নিয়ে আসছে

পাবজি মোবাইল আপডেটেড ভার্সন ১.০ নিয়ে আসার মাধ্যমে এক নতুন দিগন্ত উন্মোচন এবং বিশ্বের সবচেয়ে বড় মোবাইল ই-স্পোর্টস র্টুর্নামেন্ট পাবজি মোবাইল গ্লোবাল চ্যাম্পিয়নশিপ (পিএমজিসি) নিয়ে আসার ঘোষণা দিয়েছে।

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় মোবাইল গেম হিসেবে প্রায় তিন বছরের সাফল্য ধরে রেখে মোবাইলে সর্বাধিক বাস্তবসম্মত যুদ্ধকৌশলের টুর্নামেন্টের অভিজ্ঞতা দেওয়ার জন্য পাবজি মোবাইল আগামী ৮ সেপ্টেম্বর নতুন প্রযুক্তি, নতুন ইউএক্স, নতুন গেমপ্লে ফিচারসহ আরও অনেক কিছু নিয়ে ১.০ ভার্সন চালু করতে যাচ্ছে।

আগামী নভেম্বরের শেষের দিকে শুরু হবে পিএমজিসি সিজন জিরো এবং আমেরিকা, ইউরোপ, দক্ষিণ এশিয়া, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য, চীনসহ সকল দেশের প্রো টিমগুলো পাবে পাবজি মোবাইলের ই-স্পোর্টস ইতিহাসের সর্বোচ্চ ২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পুরস্কার ও পাবজি মোবাইল গ্লোবাল চ্যাম্পিয়নের মুকুট অর্জনের অনন্য সুযোগ। কোয়ালকম, বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ওয়্যারলেস প্রযুক্তি উদ্ভাবক পিএমসিজি-এর আনুষ্ঠানিক পৃষ্ঠপোষক ,যাদের ৫ জি এবং মোবাইল গেমিং উন্নয়নের বিশেষ ভুমিকা রয়েছে।

পাবজি মোবাইল-এর মুখপাত্র বলেন, “১.০ ভার্সন উন্মোচনের যাত্রায় আমাদের সাথে যুক্ত থাকা প্রত্যেককে আমরা ধন্যবাদ জানাতে চাই। গেমটির ডিজাইন ও উন্নয়নের পুরো প্রক্রিয়া জুড়ে আমরা আইকনিক পাবজি মোবাইল আইপি এবং স্টাইল ধরে রাখার প্রতি অনড় ছিলাম। এছাড়া আমরা মোবাইল ডিভাইসে কাঙ্ক্ষিত অভিজ্ঞতা দেওয়ার লক্ষ্যে নতুন নতুন উদ্ভাবন অব্যাহত রেখেছি।” আরও বলেন, “১.০ এর উন্মোচনই সর্বশেষ সংস্করণ নয়। পাবজি মোবাইল- ভবিষ্যতে আরও আকর্ষণীয় সব আপডেট নিয়ে আসছে , যা আমরা দ্রুতই পাবজি ভক্তদের জানিয়ে দিব।”

যুগান্তকারী ভার্সন ১.০ উন্মোচনের পাশাপাশি পাবজি মোবাইল ইস্পোর্টস, পাবজি মোবাইল ওয়ার্ল্ড লীগ এবং ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপের একত্রি করণের মাধ্যমে নিয়ে এসেছে পাবজি মোবাইল গ্লোবাল চ্যাম্পিয়নশিপ (পিএমজিসি) যা বিশ্বের সবচেয়ে বড় মোবাইল ইস্পোর্টস।

বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারীর কারণে পিএমজিসি সিজন জিরোতে অনসাইট দর্শক হয়তো পাওয়া যাবে না, তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে লিগটি নভেম্বরের শেষ দিকে একাধিক স্টুডিওতে শুরু হবে।

পাবজি মোবাইল গ্লোবাল ইস্পোর্টস পরিচালক জেমস ইয়াং বলেন, “পাবজি মোবাইল ওয়ার্ল্ড লিগ সিজন জিরোর সাফল্যের পরে আমরা জানতাম আমাদের এমন একটি কনসেপ্ট নিয়ে আসতে হবে যা আমাদের প্রত্যাশার চেয়ে বেশি কিছু এনে দিবে এবং আশা করছি, আমাদের নতুন ইস্পোর্টস প্রোগ্রামের প্রথম বছর অসাধারণ কিছু অর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ করতে পারবো।”

তিনি আরও বলেন, “সবার জন্য ২০২০ সালটি একটি বড় চ্যালেঞ্জ, আমরা আশা করি গেমিং এবং ইস্পোর্টসের মাধ্যমে বিশ্বে ইতিবাচকতা এবং উত্সাহ ফিরে আসবে। বিশ্বজুড়ে উপভোগ্য, দর্শনীয় ও অত্যন্ত প্রতিযোগিতামূলক একটি ইভেন্ট উপভোগ করার জন্য আরও অঞ্চলগুলোকে আমন্ত্রণ জানানোর ইচ্ছে ছিল আমাদের।” বিজ্ঞপ্তি

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..