পোলট্রি খাতের জন্য নীতিমালা প্রণয়নে ১১ দফা দাবি

শেয়ার বিজ ডেস্ক: পোলট্রি খাতের জন্য জাতীয় নীতিমালা তৈরি ও এ খাতের উদ্যোক্তাদের ব্যবসায়িক ক্ষতি লাঘবে ১১ দফা দাবি উত্থাপন করেছেন এ খাতের উদ্যোক্তারা। গতকাল রাজধানীর পুরান পল্টনস্থ ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ) হল রুমে বাংলাদেশ এসএমই ফোরামের সহযোগিতায় ও বাংলাদেশ পোলট্রি শিল্প ফোরাম আয়োজিত প্রান্তিক খামারি সভায় এ দাবি জানানো হয়।

বাংলাদেশ পোলট্রি শিল্প ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা এবং বাংলাদেশ এসএমই ফোরামের সভাপতি চাষি মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত সচিব কৃষিবিদ ড. শেখ মহ. রেজাউল ইসলাম, প্রধান বক্তা ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখ্য বিজ্ঞানী ড. মো. লতিফুল বারী এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন ইআরএফ সাধারণ সম্পাদক এসএম রাশিদুল ইসলাম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আগত ক্ষতিগ্রস্ত খামারিরা।

১১টি দাবি হলোÑ পোলট্রি ফিড ও বাচ্চার অযৌক্তিক মূল্যবৃদ্ধি বন্ধ করা; উৎপাদিত মুরগি ও ডিমের মূল্য নির্ধারণে খামারিদের সুযোগ দেয়া; সহজ শর্তে ব্যাংক ঋণ ও পরিশোধের ব্যবস্থা করা; পোলট্রি শিল্পের কাঁচামাল, ওষুধ, ভ্যাকসিন এবং খামারিদের ভ্যাট/ট্যাক্স মওকুফ করা; পোলট্রিবান্ধব বাজেট ও এ খাতের উন্নয়নে বিশেষ বরাদ্দ প্রদান; এ শিল্পের অন্যতম কাঁচামাল সয়ামিল রপ্তানি বন্ধ করা; দীর্ঘমেয়াদি নীতিমাল প্রণয়ন ও তা বাস্তবায়ন; এ খাতকে সিন্ডিকেট মুক্ত করা; খামারিদের আর্থিক ও জীবনের নিরাপত্তায় সরকারের পক্ষ থেকে বিশেষ নির্দেশনা দেয়া; দেশের আট বিভাগে পোলট্রি শিল্প পার্ক প্রতিষ্ঠা করা এবং খামারিদের জন্য বিশেষ বিমা চালু করা।

পোলট্রি শিল্প ফোরামের দপ্তর সমন্বয়কারী আমিনুর রহমানের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য দেন খামারি বোরহানউদ্দীন, আব্দুর রহিম, লোটাস পারভেজ, মানিক শেখ, সুজন সরকার, তাহমিদ হাসান, মাসুমা খানম প্রমুখ।


সর্বশেষ..