প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

প্যারিসসহ চার শহরে নিষিদ্ধ হচ্ছে ডিজেলচালিত গাড়ি

 

শেয়ার বিজ ডেস্ক: বায়ুদূষণ রোধে বিশ্বের অন্যতম চারটি প্রধান শহর প্যারিস, মেক্সিকো সিটি, মাদ্রিদ ও এথেন্স কর্তৃপক্ষ বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। এর অংশ হিসেবে ২০২৫ সালের মধ্যে ডিজেলচালিত গাড়ি বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। খবর বিবিসি।

মেক্সিকোতে শহরে মেয়রদের দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মেয়রদের দাবি, ডিজেল বায়ুমণ্ডলে নাইট্রোজেনের পরিমাণ বৃদ্ধি করে। তাই এসব যানবাহন ব্যবহার বন্ধ করলে দূষণমাত্রা অনেকটাই কমে যাবে।

শুধু তাই নয়, শহরবাসীকে হাঁটা ও সাইকেলে যাতায়াতের জন্য সচেতনতা বাড়ানোও হচ্ছে। ওই চার দেশের গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলো বৈদ্যুতিক এবং ব্যাটারিচালিত গাড়ি তৈরি শুরু করেছে। ইতোমধ্যেই ভারতের বেশিরভাগ শহরে ১০ বছরের পুরনো ডিজেলচালিত গাড়ি বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যমতে, প্রতিবছর বায়–দূষণের কারণে প্রায় ৩০ লাখ মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে।

বিবিসির বিশ্লেষকদের মতে, বায়ুদূষণ রোধে ডিজেলচালিত গাড়ি বাতিলের এই সিদ্ধান্ত খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। এতে গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো এবং অন্যান্য শহরের নেতারা উৎসাহী হবেন।

গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর পরিবেশ উন্নয়নে পদক্ষেপ নেওয়ার চেয়ে শহরের কর্তৃক্ষের এ ধরনের পদক্ষেপ কার্যকর হবে মনে করা হচ্ছে। কারণ অটোমোবাইলের বড় বড় নকশাগুলো গাড়ি নির্মাতাদের নয়, বরং নীতিনির্ধারকদের।

ইতোমধ্যে বিভিন্ন ইলেকট্রিক ও হাইড্রোজেন গাড়ি নির্মাণ করা হচ্ছে, যা খুবই ইতিবাচক বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

ইতোমধ্যে প্যারিস ডিজেলচালিত গাড়ির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে বাঁচতে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিয়েছে। ১৯৯৭ সালের আগে নিবন্ধিত গাড়ি দেশটির শহরে বাতিল করা হয়েছে। ২০২০ সাল পর্যন্ত প্রতি বছরই নিষেধাজ্ঞা বাড়াবে দেশটি।

প্যারিস সিটি মেয়র অ্যানি হিডালগো বলেন, বায়ুদূষণ রোধে শহরে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে আমরা পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর গাড়িগুলো নিষিদ্ধ করবো।