বিশ্ব সংবাদ

প্রতিষেধকে আস্থা রেখেই ধৈর্য ধরার বার্তা বাইডেনের

শেয়ার বিজ ডেস্ক: করোনা সংক্রমণের নিরিখে বিশ্বের শীর্ষে থাকা আমেরিকায় জোর কদমে গণটিকাদানের কাজ চলছে। মডার্না ও ফাইজারের পরে প্রতিষেধকে ছাড়পত্র পেয়েছে জনসন অ্যান্ড জনসনও। এদিকে ভাইরাসের নতুন নতুন স্ট্রেইনের দৌলতে রোজই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে আমজনতার প্রশ্ন, নতুন সংক্রমণ রুখতে কতটা দ্রুত টিকাদান শেষ করা সম্ভব। খবর: সিএনএন।

জনসাধারণকে আশ্বস্ত করে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আরও খানিকটা ধৈর্য ধরতে অবেদন জানিয়েছেন। মঙ্গলবার তিনি বলেন, ‘দীর্ঘ সুড়ঙ্গের শেষে আলোর দেখা মিলবেই। তবে জয় নিশ্চিত জেনে আমরা কিছুতেই সুরক্ষাকবচগুলোকে অবহেলা করতে পারি না। আমাদের সচেতন থাকতেই হবে। আরও দ্রুত ও আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে কাজ করতে হবে। একে অন্যের পাশে দাঁড়াতে হবে।’ টিকাদান পর্ব দ্রুত শেষ করতে যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে ব্যবহƒত বিশেষ ক্ষমতা প্রয়োগের কথা জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট। পাশাপাশি দেশের অন্যতম বৃহৎ একটি ওষুধ নির্মাতা সংস্থাকে জনসনের টিকা তৈরির জন্য বিপুল বরাদ্দ দেয়ার কথাও বলেছেন তিনি। তাছাড়া করোনা নিয়ন্ত্রণে বাইডেন প্রশাসন আর্থিক বরাদ্দ বাড়ানোর যে প্রস্তাব দিয়েছিল, সে-সংক্রান্ত বিলটি হাউসে পাস হয়ে গেছে। এবার শুধু সিনেটের অনুমোদনের অপেক্ষা।

তবে আশ্বাস পেয়েও অপেক্ষা করতে রাজি নন টেক্সাস ও মিসিসিপির রিপাবলিকান গভর্নরেরা। বাইডেন-বাণী অগ্রাহ্য করে মাস্ক পরা-সহ করোনা বিধিনিষেধ তুলে নেয়ার কথা ঘোষণা করেছেন তারা। অফিস-আদালত পুরোদমে চালু করার নির্দেশ দিয়েছেন। এতে নতুন করে আশঙ্কার মেঘ দেখছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। মিসিসিপির প্রধান শহর জ্যাকসনের মেয়র বলেছেন, ‘এই নির্দেশ বিভ্রান্তিকর। কভিড রুখতে আমাদের সমস্ত প্রচেষ্টাকে তা ব্যর্থ করে দেবে। বিশেষজ্ঞরা না-বলা পর্যন্ত জ্যাকসনে বিধি বলবৎ থাকবে।’

এদিকে চীন ও দক্ষিণ আফ্রিকায় দুটি জাল ভ্যাকসিন চক্রের সন্ধান পেয়েছে ইন্টারপোলের পুলিশ ও গোয়েন্দারা। বুধবার তারা জানিয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকার গাউটেং প্রদেশের জারমিস্টোন শহরের এক গুদামঘর থেকে প্রায় দুই হাজার ৪০০টি ভুয়া ডোজ উদ্ধার করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে ভুয়া মাস্কও। চীনে একটি ভুয়া ভ্যাকসিন চক্র ফাঁস করেছে তারা। তিন হাজার ভুয়া ডোজ উদ্ধারের পাশাপাশি ওই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৮০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিদেশিদের জন্য আরও তিন মাস (জুন পর্যন্ত) আন্তর্জাতিক সীমান্ত বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করেছে অস্ট্রেলিয়া। অন্যদিকে এই মার্চে ভোটের কথা মাথায় রেখে আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবায় কড়াকড়ি খানিকটা শিথিল করার কথা ঘোষণা করেছে ইজরাইল। তাতে প্রবাসীদের পক্ষে দেশে ফিরে ভোট দেয়া সহজ হবে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..