বিশ্ব সংবাদ

প্রথমবারের মতো উ. কোরিয়া সফরে চীনের প্রেসিডেন্ট

শেয়ার বিজ ডেস্ক: প্রথমবারের মতো উত্তর কোরিয়া সফরে রয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। ২০০৬ সালে চীনের রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর এটাই তার প্রথম সফর। এছাড়া ১৪ বছরের মধ্যে এই প্রথম চীনের কোনো প্রেসিডেন্ট উত্তর কোরিয়া সফর করছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার পিয়ংইয়ং পৌঁছেছেন তিনি। এ সফরে পরমাণু প্রকল্প ও বাণিজ্যিক বিষয় নিয়ে আলোচনা হতে পারে। খবর: বিবিসি।
এর আগে চীনে এ ?দুই নেতার চারবার দেখা হলেও উত্তর কোরিয়ায় প্রথম। চলতি বছরের জানুয়ারিতে বেইজিং সফরের সময় দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক স্থাপনের ৭০তম বার্ষিকী উপলক্ষে চীনের প্রেসিডেন্টকে উত্তর কোরিয়া সফরের আমন্ত্রণ জানান কিম। উত্তর কোরিয়ার প্রধান বাণিজ্য সহযোগী চীন।
এক সপ্তাহ পরেই জি২০ সম্মেলনে ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের কথা রয়েছে শি জিনপিংয়ের। তার আগে কিমের সঙ্গে এ বৈঠক কূটনৈতিকভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে বিবেচনা করা হচ্ছে। সফরে কোরীয় পরিস্থিতি, দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কোন্নয়ন এবং নিরাপত্তা ইস্যুতে আলোচনা করবেন তিনি।
জাপানে অনুষ্ঠিতব্য জি-টোয়েন্টি সম্মেলনের সপ্তাহখানেক আগে উত্তর কোরিয়া সফরে গেলেন শি। ওই সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। আর সম্মেলন শেষে দক্ষিণ কোরিয়া যাবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এ অবস্থায় এ সফরকে আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।
যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যে পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে জোরালো সম্পর্ক গড়ে তুলতেই চীনের প্রেসিডেন্টের এ সফর বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, ট্রাম্পের সঙ্গে কিমের বৈঠক ভেস্তে যাওয়ার সুযোগ নেবেন শি জিনপিং।
পারমাণবিক কর্মসূচিসহ নানা বিষয়ে দীর্ঘদিন ধরে আন্তর্জাতিক অবরোধের মধ্যে আছে উত্তর কোরিয়া। কোরীয় সংকটের একটা গ্রহণযোগ্য সমাধানের প্রত্যাশায় উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দুবার বৈঠক করেছেন। তবে এ বৈঠকে কোনো সমাধান আসেনি।
উত্তর কোরিয়ার বন্ধুরাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত চীন। পিয়ংইয়ংয়ের ওপর বেইজিংয়ের যথেষ্ট প্রভাব রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের নানা অবরোধের মধ্যে চীনের কাছ থেকে সমর্থন পেয়ে আসছে উত্তর কোরিয়া।
সর্বশেষ ২০০৫ সালে উত্তর কোরিয়া সফর করেন তৎকালীন চীনের প্রেসিডেন্ট হু জিনতাও। গত বছরই চারবার চীন সফর করেছেন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন।

সর্বশেষ..