প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

প্রথমার্ধে আয় কমেছে প্রাইম ও ন্যাশনাল ব্যাংকের

নিজস্ব প্রতিবেদক: চলতি হিসাববছরের প্রথমার্ধে (জানুয়ারি-জুন, ২০২২) শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) কমেছে ব্যাংক খাতের কোম্পানি প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড এবং ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেডের। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড: চলতি হিসাববছরের প্রথম দুই প্রান্তিকে বা প্রথমার্ধে (জানুয়ারি-জুন, ২০২২) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৫৯ পয়সা, আগের হিসাববছরের একই সময়ে যা ছিল ১ টাকা ৮১ পয়সা। সে হিসেবে আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি ইপিএস কমেছে ২২ পয়সা। অন্যদিকে চলতি হিসাবছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে (এপ্রিল-জুন, ২০২২) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৬৭ পয়সা, আগের বছর একই সময়ে যা ছিল ৪৭ পয়সা। অর্থাৎ দ্বিতীয় প্রান্তিকে ইপিএস কমেছে ২০ পয়সা। অন্যদিকে ৩০ জুন, ২০২২ কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নেট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৬ টাকা ১৯ পয়সা। আর প্রথম দুই প্রান্তিকে শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ হয়েছে ১ টাকা ১৩ পয়সা (ঘাটতি), যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৭ টাকা ১৫ পয়সা।

এদিকে আন্তর্জাতিক হিসাবমানের (আইএএস) সম্পদ, কারখানা ও যন্ত্রপাতি পুনর্মূল্যায়নের বিধান অনুসারে জমি ও ভবন পুনর্মূল্যায়ন করেছে প্রাইম ব্যাংক। ইস্টল্যান্ড সার্ভেয়ারের পুনর্মূল্যায়ন প্রতিবেদন অনুসারে শেয়ারহোল্ডারদের ইকুইটির আওতায় ১২ কোটি ৩৫ লাখ টাকা পুনর্মূল্যায়িত সঞ্চিতি হিসেবে এবং ৩ কোটি ২০ লাখ টাকা ব্যয় হিসেবে লাভ-ক্ষতি হিসেবে দেখানো হয়েছে। সম্প্রতি ব্যাংকটির দ্বিতীয় প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশের পাশাপাশি এ তথ্য জানানো হয়।

৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ২০২১ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদেও সাড়ে ১৭ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে প্রাইম ব্যাংক। আলোচ্য হিসাব বছরে ব্যাংকটির সমন্বিত ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ৮৭ পয়সা, আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ১ টাকা ৬১ পয়সা।

ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড: চলতি হিসাবছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে (এপ্রিল-জুন, ২০২২) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৩৬ পয়সা (লোকসান), আগের বছর একই সময়ে যা ছিল ১৬ পয়সা। অর্থাৎ দ্বিতীয় প্রান্তিকে ইপিএস কমেছে ৫২ পয়সা। অন্যদিকে চলতি হিসাববছরের প্রথম দুই প্রান্তিকে (জানুয়ারি-জুন, ২০২২) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ৫৪ পয়সা (লোকসান), আগের হিসাববছরের একই সময়ে যা ছিল ২৮ পয়সা। সে হিসেবে আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি ইপিএস কমেছে ৮২ পয়সা। ৩০ জুন, ২০২২ কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নেট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ১৫ টাকা ৪৯ পয়সা। আর প্রথম দুই প্রান্তিকে শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ হয়েছে ৪ টাকা ৭৯ পয়সা (ঘাটতি), যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৭ টাকা ৮০ পয়সা (ঘাটতি)।

৩১ ডিসেম্বর ২০২১ সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের কোনো লভ্যাংশ দেয়নি ন্যাশনাল ব্যাংক। আলোচ্য হিসাববছরে এনবিএলের সমন্বিত ইপিএস ছিল ১২ পয়সা, আগের বছরে আয় ছিল ১ টাকা ১২ পয়সা (পুনর্মূল্যায়িত)। ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বর শেষে ব্যাংকটি সমন্বিত এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ১৩ পয়সায়। আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ১৬ টাকা ৯১ পয়সায়।