Print Date & Time : 3 July 2022 Sunday 6:49 pm

প্রথম প্রান্তিকে এসএস স্টিলের ইপিএস বেড়েছে দুই পয়সা

নিজস্ব প্রতিবেদক : চলতি হিসাববছরের প্রথম প্রান্তিকের (জুলাই-সেপ্টেম্বর, ’২১) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে প্রকৌশল খাতের কোম্পানি এসএস স্টিল লিমিটেড। আর এ প্রান্তিকে কোম্পানিটির ইপিএস দুই পয়সা বেড়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, কোম্পানিটির প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর, ’২১) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৭৩ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৭১ পয়সা। অর্থাৎ, ইপিএস বেড়েছে দুই পয়সা। ২০২১ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর শেয়ারপ্রতি নেট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২৪ টাকা ৩২ পয়সা (পুনর্মূল্যায়নসহ)। আর প্রথম প্রান্তিকে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ৫৪ পয়সা।

এদিকে সম্প্রতি ব্যবসা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে জমি, ভবন ও মূলধনি যন্ত্রপাতি কেনার জন্য ২০ কোটি টাকা বিনিয়োগের অনুমোদন দিয়েছে এসএস স্টিল লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ। একইসঙ্গে ৩০ জুন, ২০২১ সমাপ্ত হিসাববছরের আর্থিক প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে পরিচালকদের ব্যতীত সাধারণ বিনিয়োগকারীদের জন্য দুই শতাংশ নগদ আর সব বিনিয়োগকারীর জন্য আট শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়। আর ঘোষিত লভ্যাংশ বিনিয়োগকারীদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য গত ৩১ ডিসেম্বর বেলা ১১টায় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হয়।

এদিকে আলোচিত হিসাববছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে দুই টাকা ৩১ পয়সা। ৩০ জুন, ২০২১ তারিখে শেয়ারপ্রতি নেট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২৫ টাকা ৫৮ পয়সা। এছাড়া এই হিসাববছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে দুই টাকা এক পয়সা।

এর আগে কোম্পানিটি ৩০ জুন, ২০২০ সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য দুই শতাংশ নগদ (উদ্যোক্তা ও পরিচালক ব্যতীত) এবং আট শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে ইপিএস হয়েছে এক টাকা ৫৫ পয়সা এবং এনএভি দাঁড়িয়েছে ১৭ টাকা ৪৮ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ হয়েছে দুই টাকা ৪৬ পয়সা।

প্রকৌশল খাতের ‘এ’ ক্যাটেগরির কোম্পানিটি ২০১৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ৫০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ৩০৪ কোটি ২৯ লাখ টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ১৮৮ কোটি ৩১ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট ৩০ কোটি ৪২ লাখ ৯০ হাজার শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, কোম্পানির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে ৩১ দশমিক ৭৯ শতাংশ শেয়ার রয়েছে, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর কাছে ১০ দশমিক শূন্য এক শতাংশ এবং বাকি ৫৮ দশমিক ২০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে।