প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

প্রথম প্রান্তিকে স্মার্টফোনের বাজারে শীর্ষে স্যামসাং

শেয়ার বিজ ডেস্ক : চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) স্মার্টফোনের বাজারে শীর্ষস্থান দখল করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। এর আগে ২০১৭ সালের প্রথম প্রান্তিকেও স্মার্টফোন বাজারের শীর্ষে ছিল স্যামসাংয়ের স্মার্টফোন। খবর রয়টার্স।
বাজার গবেষণার বৈশ্বিক প্রতিষ্ঠান গার্টনারের প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রথম প্রান্তিকে বাজারের ২০ দশমিক পাঁচ শতাংশ শেয়ার দখলে রেখেছে স্যামসাং। বছরের প্রথম প্রান্তিকে স্যামসাং বিশ্বে সাত কোটি ৮৫ লাখ ৬৪ হাজার ইউনিট স্মার্টফোন বিক্রি করেছে।
গার্টনারের তথ্য অনুযায়ী, বাজার দখলের হিসাবে স্যামসাংয়ের পরই রয়েছে অ্যাপল। তবে চীনা ব্র্যান্ডগুলো সম্মিলিতভাবে বাজারের ৭০ শতাংশ নিজেদের দখলে রেখেছে।
এ বছরের প্রথম প্রান্তিকে ২০১৭ সালের প্রথম প্রান্তিকের তুলনায় স্মার্টফোনের আন্তর্জাতিক বাজারে এক দশমিক তিন শতাংশ বেশি স্মার্টফোন বিক্রি হয়েছে। এ কারণে এ বছর স্মার্টফোনের বাজারে সামান্য উন্নয়ন লক্ষণীয়। গার্টনারের তালিকা অনুযায়ী, স্যামসাংয়ের পরে স্মার্টফোনের বাজারে অবস্থান করছেÑঅ্যাপল, হুয়াওয়ে, শাওমি ও অপো।
এদিকে চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে দক্ষিণ কোরিয়াভিত্তিক প্রযুক্তি জায়ান্ট স্যামসাং ইলেকট্রনিকস রেকর্ড মুনাফা করেছে। চিপ ব্যবসায় উন্নতি ও গ্যালাক্সি এস৯ স্মার্টফোন বিক্রি এ মুনাফায় বড় ভ‚মিকা রেখেছে বলে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে।
প্রতিবেদন মতে, আইনফোন নির্মাতা অ্যাপলের প্রধান প্রতিযোগী ও শীর্ষ সেমিকন্ডাক্টর নির্মাতা স্যামসাং চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে ১৫ দশমিক ৬ ট্রিলিয়ন ওন বা ১৪ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার মুনাফা করেছে। আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় এটি ৫৭ দশমিক ৬ শতাংশ বেশি। কোন প্রান্তিকে এটিই প্রতিষ্ঠানটির সর্বোচ্চ মুনাফা। এর আগে থমসন রয়টার্স পূর্বাভাস দিয়েছিল এ প্রান্তিকে প্রতিষ্ঠানটির মুনাফা হবে ১৪ দশমিক ৫ ট্রিলিয়ন ওন। অর্থাৎ পূর্বাভাসকেও ছাড়িয়ে যাবে স্যাসসাংয়ের মুনাফা।
অন্যদিকে প্রথম প্রান্তিকে ৬০ ট্রিলিয়ন ওন আয় হয়েছে স্যামসাংয়ের। আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় এ আয় ১৮ দশমিক ৭ শতাংশ বেশি। চলতি এপ্রিলের শেষের দিকে দক্ষিণ কোরীয় এ প্রতিষ্ঠানটি তাদের প্রান্তিকীয় ফলাফল বিস্তারিত প্রকাশ করবে।
চলতি প্রান্তিকে স্যামসাংয়ের রেকর্ড মুনাফায় বড় ভ‚মিকা রেখেছে চিপ বিক্রি। এ প্রান্তিকে ১০ দশমিক ৭ ট্রিলিয়ন ওয়ন মুনাফাই এসেছে এ বিভাগ থেকে। চিপ থেকে প্রতিষ্ঠানটির মুনাফা অব্যাহত থাকবে বলেও মনে করছেন তারা।