বিশ্ব সংবাদ

প্রভাব পড়বে মাজদার এক লাখ গাড়িতে

চিপ সংকট

শেয়ার বিজ ডেস্ক: কভিড মহামারির কারণে চিপ সংকটে ব্যাপক প্রভাব পড়ছে গাড়িশিল্পের ওপর। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি কোম্পানি চিপ সংকটের কারণে বিভিন্ন প্লান্টে উৎপাদন বন্ধ রেখেছে। তবে চিপ সংকটে জাপানি মোটর কোম্পানি মাজদা মোটর করপোরেশনের ওপর ব্যাপকভাবে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। চলতি অর্থবছরে চিপ সংকটের দরুন বৈশ্বিকভাবে কোম্পানিটির প্রায় এক লাখ গাড়ির প্রভাব পড়বে। সম্প্রতি এ বিষয়টি নিজ থেকেই জানিয়েছে জাপানি গাড়িনির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি। খবর: নিক্কে এশিয়া, রয়টার্স।

মাজদা এক বিবৃতিতে বলেছে, সংকট সামাল দিতে পুরোপুরি নিজেদের মজুতের ওপর নির্ভর করবে প্রতিষ্ঠানটি। এভাবে প্রায় ৭০ হাজার পাইকারি ইউনিটের সংকট সামাল দিতে পারবে তারা।

করোনা মহামারির এ সময়ে গোটা বিশ্ব বাসা থেকে কাজ ও পড়ালেখা চালিয়ে যাচ্ছে। এতে করে চাহিদা বেড়ে গেছে ল্যাপটপ ও অন্যান্য গ্যাজেটের। ফলে চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তৈরি হয়েছে বৈশ্বিক চিপ সংকট।

পরামর্শক প্রতিষ্ঠান অ্যালিক্স পার্টনার বলছে, এ সংকটের কারণে এ বছর গাড়িনির্মাতাদের আয় কমছে ১১ হাজার কোটি ডলার। ধারণা করা হয়েছিল, আয় কমবে ছয় হাজার ১০০ কোটি ডলার। হিসেবে কমবে তার চেয়েও বেশি। সব মিলিয়ে চিপ সংকটের প্রভাব পড়বে ৩৯ লাখ গাড়িতে।

অটোমোবাইল প্রতিষ্ঠানগুলো ইঞ্জিনের কম্পিউটার ব্যবস্থাপনা থেকে শুরু করে জ্বালানির আরও ভালো ব্যবস্থাপনা এবং জরুরি-ব্রেকিংয়ের মতো চালক সহায়তা ফিচারের ওপর নির্ভর করে থাকে।

এদিকে জাপানের আরেক অটো জায়ান্ট টয়োটা তাদের নিজস্ব ব্যবস্থায় চিপ উৎপাদন বৃদ্ধি করে বাজারে আরও গাড়ি ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে। সম্প্রতি জাপানি এ কোম্পানিটি জানায়, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের বাজারে ব্যাপক চাহিদা থাকায় আগামী ২০২২ সাল নাগাদ প্রথমবারের মতো তারা সর্বোচ্চ ১০ মিলিয়ন ইউনিট গাড়ি উৎপাদন করবে। টয়োটা ঘোষণা দেয়, ২০২২ সালের অর্থবছর শেষে, অর্থাৎ ২০২৩ সালের মার্চ শেষে তারা ১০ দশমিক চার মিলিয়ন ইউনিট গাড়ি উৎপাদনের পরিকল্পনা করেছে।

টায়োটা জানায়, কভিড টিকার সফল ক্যাম্পেইন এবং সেমিকন্ডাক্টরের পর্যাপ্ত উৎপাদন থাকায় বৈশ্বিক চাবিহা পূরণে কোম্পানিটি প্রথমবারের মতো সর্বোচ্চ ১০ মিলিয়িন ইউনিট গাড়ি উৎপাদনের পরিকল্পনা করেছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..