টেলকো টেক

প্রযুক্তিতে দক্ষ কারিগর সম্মাননা দিল ক্রিয়েটিভ আইটি

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ক্রিয়েটিভ আইটির উদ্যোগে দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হলো ‘দক্ষ কারিগর সম্মাননা ২০১৯’। ওই অনুষ্ঠানে ক্রিয়েটিভ আইটিতে ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যাটাচমেন্ট সম্পন্ন করা ৭০০ কারিগরি শিক্ষার্থী পেয়েছেন দক্ষতার সনদ। ৫০০ শিক্ষার্থী পেয়েছেন জব প্লেসমেন্ট সেলের মাধ্যমে তথ্যপ্রযুক্তি অঙ্গনে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ। এছাড়া ৫২ সেরা প্রযুক্তিবিষয়ক দক্ষ কারিগর তাদের সাফল্যের স্বীকৃত স্বরূপ ‘প্রযুক্তিতে দক্ষ কারিগর সম্মাননা ২০১৯’ পেয়েছে।
গত ১৫ জুন রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে এ বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে অ্যাওয়ার্ড ও নিয়োগপত্র দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানটির প্রথমার্ধে প্রধান অতিথি ছিলেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার সেলস অ্যান্ড সার্ভিসের (বেসিস) সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর ও প্রথম আলোর হেড অব ইয়ুথ প্রোগ্রাম মুনির হাসান। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ২৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান মানিক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও
প্রযুক্তি উপকমিটির সদস্য এসএম আল ইমরান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ ব্যারিস্টার মো. কৌশিক নাহিয়ান, ক্রিয়েটিভ আইটির এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর পারভীন আক্তার প্রমুখ।
অনুষ্ঠানটিতে সভাপতিত্ব করেন ক্রিয়েটিভ আইটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. মনির হোসেন। ওই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিসহ বিশেষ অতিথিরা প্রজন্মের ৫২ প্রযুক্তি দক্ষ কারিগরদের হাতে আটটি ক্যাটেগরিতে সম্মাননা সূচক প্রযুক্তিতে ‘দক্ষ কারিগর সম্মাননা ২০১৯’ অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন। ক্যাটেগরিগুলো হচ্ছে অদম্য অ্যাওয়ার্ড, টপ ফ্রিল্যান্সার অ্যাওয়ার্ড, নারী ফ্রিল্যান্সার অ্যাওয়ার্ড, এমপ্লয়ি অ্যাওয়ার্ড, উদ্যোক্তা অ্যাওয়ার্ড, ফ্রিল্যান্সার টিম অ্যাওয়ার্ড, বিগিনার্স অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড ও ডিসট্যান্ট লার্নিং অ্যাওয়ার্ড। নির্বাচিত ৫০০ শিক্ষার্থীর হাতে তুলে দেওয়া হয় জব প্লেসমেন্টের মাধ্যমে বিভিন্ন স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানে যোগদানের নিয়োগপত্র।
অনুষ্ঠানটির দ্বিতীয় পর্বে (অনুপ্রেরণা পর্ব) প্রজন্মের প্রযুক্তিতে দক্ষ কারিগরদের অনুপ্রেরণা দিতে উপস্থিত হন বুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের প্রফেসর ড. মো. কায়কোবাদ, বেসিসের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ফারহানা এ. রহমান, বেসিসের ডিরেক্টর দিদারুল আলম সানি, বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা আরিফুল হাসান অপু, বোল্ডের প্রেসিডেন্ট কাজী এম আহমেদ প্রমুখ। অনুষ্ঠানটির সমাপ্তি ঘটে ক্রিয়েটিভ আইটির শিক্ষার্থীদের মনোমুগ্ধকর সংগীত ও সাংস্কৃতিক আয়োজনের মধ্য দিয়ে।

সর্বশেষ..