কোম্পানি সংবাদ

প্রিমিয়ার লিজিংয়ের ঋণমান ‘এ প্লাস’ ও ‘এসটি-২’

নিজস্ব প্রতিবেদক : আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতের কোম্পানি প্রিমিয়ার লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স লিমিটেডের ঋণমান অবস্থান (ক্রেডিট রেটিং) নির্ণয় করেছে আরগুস ক্রেডিট রেটিং সার্ভিসেস কোম্পানি লিমিটেড (এসিআরএসএল)। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্যমতে, কোম্পানিটি দীর্ঘ মেয়াদে রেটিং পেয়েছে ‘এ প্লাস’ এবং স্বল্প মেয়াদে ‘এসটি-২’ পেয়েছে। কোম্পানিটির ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন ও ২০১৯ সালের প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন এবং অন্যান্য প্রাসঙ্গিক তথ্যের আলোকে এ রেটিং সম্পন্ন হয়েছে।

কোম্পানিটি ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে বিনিয়োগকারীদের পাঁচ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছে। ওই সময় শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে ৫৮ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ২৮ পয়সা।

এদিকে সর্বশেষ কার্যদিবসে ডিএসইতে শেয়ারদর এক দশমিক ৬৭ শতাংশ বা ১০ পয়সা বেড়ে প্রতিটি সর্বশেষ ছয় টাকা ১০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ছয় টাকা। ওইদিন কোম্পানিটির দুই লাখ ৮৪ হাজার ৮৭৯টি শেয়ার মোট ১০৫ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ১৭ লাখ ১১ হাজার টাকা। দিনভর শেয়ারদর সর্বনি¤œ পাঁচ টাকা ৯০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ছয় টাকা ২০ পয়সায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর চার টাকা ৯০ পয়সা থেকে ১৪ টাকা ২০ পয়সায় ওঠানামা করে।

এর আগে ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের জন্য পাঁচ শতাংশ নগদ ও পাঁচ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। আর তার আগের বছর অর্থাৎ ২০১৬ সালেও একই পরিমাণ লভ্যাংশ দিয়েছিল। ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছিল এক টাকা ১২ পয়সা এবং শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ৬৪ পয়সা। ওই সময় মুনাফা করে ১৩ কোটি ৫৬ লাখ ৬০ হাজার টাকা। কোম্পানিটি ২০০৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘বি’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। ৩০০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন ১৩২ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। রিজার্ভের পরিমাণ ৭৩ কোটি ২১ লাখ ২০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির ১৩ কোটি ২৯ লাখ ৭০ হাজার ২১১টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসইর সর্বশেষ তথ্যমতে, মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা বা পরিচালকের কাছে রয়েছে ৩০ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ২৬ দশমিক ৭৩ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে রয়েছে ৪৩ দশমিক ২৭ শতাংশ শেয়ার। সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে শেয়ারের মূল্য আয় (পিই) অনুপাত ১০ দশমিক ৩৪ এবং হালনাগাদ অনিরীক্ষিত ইপিএসের ভিত্তিতে ৫০।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..