প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

প্রিমিয়ার ব্যাংকের ১৮ বছর: খেলাপি ঋণ কমানোর ঘোষণা

 

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামীতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ কমিয়ে আনতে চায় প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড। ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও খোন্দকার ফজলে রশিদ বলেছেন, দেশের ব্যাংকিং খাতের বড় সমস্যা হচ্ছে খেলাপি ঋণ। এই বিষয়টিকে সামনে রেখে আমরা আমাদের পরিচালন পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনছি। আমরা এখন করপোরেট ঋণ থেকে বেরিয়ে এসে এসএমই এবং রিটেইলের দিকে নজর দিচ্ছি।

গতকাল বৃহস্পতিবার প্রিমিয়ার ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে ব্যাংকটির ১৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান তিনি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। এছাড়া বিশেষ অতিথি ছিলেন ব্যাংকের চেয়ারম্যান ডা. এইচ বি এম ইকবাল এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক অন্তর্ভুক্তি বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার মো. আবুল বাশার। অনুষ্ঠানে আরও ছিলেন ব্যাংকের পরিচালক বি এইচ হারুন, এমপি; আবদুস সালাম মুর্শেদী; সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মঈন ইকবাল; জামাল জি. আহমদ; উপদেষ্টা মোহাম্মদ আলী প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক খোন্দকার ফজলে রশিদ বলেন, শিগগিরই আমরা প্রত্যন্ত অঞ্চলে ১০০টি এজেন্ট ব্যাংকিং বুথ স্থাপন করতে যাচ্ছি, যার মাধ্যমে অধিকাংশ গ্রাহককে আমরা ব্যাংকের সঙ্গে যুক্ত করতে পারব। বর্তমানে আমাদের সাড়ে তিন লাখ গ্রাহক আছে। এ বছরের মধ্যেই পাঁচ লাখ গ্রাহককে আমাদের ব্যাংকে অন্তর্ভুক্ত করব। করপোরেট ব্যাংকিং থেকে সরে এসে আমরা এসএমই এবং রিটেইলের দিকে যাচ্ছি।

ব্যাংকের চেয়ারম্যান ডা. এইচ বি এম ইকবাল বলেন, ব্যতিক্রমধর্মী কাজের মাধ্যমে আমরা এই ব্যাংকটিকে এগিয়ে নিতে চাই। এজন্য আমরা নানা ধরনের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি।

ব্যাংক কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, এখন আমাদের এই ব্যাংকের বয়স ১৮ বছর হয়ে গেছে। তাই এখন আর কোনো ভুল করা যাবে না। আপনাদের যে কাজ আপনারা সেটাই করবেন। এখন ভুল করলে আর মাফ পাওয়া যাবে না।

তিনি বলেন, ব্যাংকে বেশি পরিচালক থাকা ভালো নয়। নেতৃত্ব যত কম হবে তত কাজ ভালো হবে। তিনি জানান, ৩৭ কর্মকর্তা নিয়ে আমরা এই ব্যাংক শুরু করেছিলাম। এখন আমাদের ১০২টি শাখা এবং প্রায় এক হাজার ৭০০ কর্মকর্তা রয়েছেন, যাদের গড় বেতন দুই লাখ টাকা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়েছে, চলতি বছরের প্রথম ৯ মাসে মুনাফায় প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৫৫ শতাংশ, আমানতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৯ শতাংশ, ঋণে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৯ শতাংশ, আমদানিতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৭ শতাংশ, রফতানিতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৪০ শতাংশ এবং রেমিট্যান্সে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২৩ শতাংশ।

অনুষ্ঠানে প্রিমিয়ার ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং সেবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে।