প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

পড়তে যাই অস্ট্রিয়া

রবিউল কমল: অস্ট্রিয়া ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত উন্নত একটি দেশ। দেশটির অবস্থান মধ্য ইউরোপে। ৯টি রাজ্যের সমন্বয়ে গঠিত এ দেশ ১৯১৮ সালে প্রজাতন্ত্র হিসেবে স্বীকৃতি পেলেও পূর্ণ সার্বভৌমত্ব পায় ১৯৫৫ সালে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত হয় ১৯৯৫ সালে। অস্ট্রিয়ার শিক্ষা কার্যক্রম ইউরোপের অন্যান্য দেশের মতোই উন্নত। তাছাড়া অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ দেশটির ইউরোপীয় সমাজব্যবস্থা ও উন্নত জীবনমান বিদেশি ছাত্রদের আকর্ষণ করে। এ কারণে আমাদের দেশ থেকেও প্রতি বছর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিক্ষার্থী অস্ট্রিয়ায় পড়তে যাচ্ছে।

শিক্ষাব্যবস্থা

উচ্চশিক্ষার জন্য অস্ট্রিয়ার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ডিপ্লোমা, আন্ডার-গ্র্যাজুয়েট, গ্র্যাজুয়েট বা মাস্টার্স, পিএইচডি ও বিভিন্ন সার্টিফিকেট কোর্স বিদ্যমান। কোর্সগুলোর শিক্ষামান আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। এ দেশে আন্ডার-গ্র্যাজুয়েট ও গ্র্যাজুয়েট কোর্সের মেয়াদ সাধারণত চার বছরের হয়ে থাকে।

পড়ালেখার বিষয়

মেডিক্যাল সায়েন্স ও মেডিসিন (অ্যানাসথেসিওলজি, কার্ডিওলজি, ডারমেটোলজি, ভেনেরোলজি, গাইনোকোলজি, ইসিওনোলজি, কেমোথেরাপি, ইন্ডোক্সিনোলজি, গ্যাস্ট্রোয়েন্টারোলজি, হেমাটোলজি, নেফরোলজি, নিউক্লিয়ার মেডিসিন, অর্থোপেডিক, সার্জারি, প্যাথলজি, রেডিওলজি, ইউরোলজি ইত্যাদি), আর্কিটেকচার, প্লাস্টিক আর্টস অ্যান্ড ডিভাইস, ফাইন আর্টস, ভিজ্যুয়াল কমিউনিকেশন, মিউজিক, ম্যানেজমেন্ট, ট্যুরিজম, হোটেল অ্যান্ড ক্যাটারিং ম্যানেজমেন্ট, বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন, ইন্টারন্যাশনাল রিলেশন্স, আইন, অ্যাকাউন্টিং, মার্কেটিং, ইনফরমেশন সায়েন্স, সোশ্যাল সায়েন্স, টেলিকমিউনিকেশন, কম্পিউটার সায়েন্স, ফাইন্যান্স, মিডিয়াসহ আরো অনেক যুগোপযোগী বিষয় চালু রয়েছে।

পড়ালেখার ভাষা

অস্ট্রিয়ার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে সাধারণত জার্মান ভাষায় শিক্ষাদান করা হয়। তাই ব্যাচেলর লেভেলে পড়াশোনা করতে হলে জার্মান ভাষা জানা বাধ্যতামূলক। তবে কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজিতে পড়ানো হয়। অনেক অস্ট্রিয়ান বিশ্ববিদ্যালয় বিদেশি ছাত্রদের জার্মান ভাষার ওপর কোর্স করায়। তবে আগে থেকে জার্মান ভাষা জানা থাকলে প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হওয়া সহজ হয়। জার্মান ভাষা শেখার জন্য ঢাকার জার্মান কালচারাল সেন্টারে যোগাযোগ করতে পারেন। মাস্টার্স, পিএইচডি ইংরেজি মাধ্যমে পড়তে পারবেন।

খরচ

বিশ্ববিদ্যালয়ে বার্ষিক টিউশন ফি প্রায় ৪৮ হাজার টাকা। এছাড়া বই বাবদ প্রায় ৪ হাজার ৮০০ থেকে ৮ হাজার ৪০০ টাকা। জীবনযাপনে বছরে ব্যয় হতে পারে ৪ লাখ ২০ হাজার থেকে ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

কাজের সুযোগ

ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত অন্যান্য দেশের মতো এদেশেও ছাত্ররা সপ্তাহে প্রায় ১৫ থেকে ২০ ঘণ্টা খণ্ডকালীন কাজ করতে পারেন। তাছাড়া ছুটির সময় পূর্ণকালীন কাজ করতে পারবেন।

আবেদন ও ভর্তি প্রক্রিয়া

ইউরোপের অন্যান্য দেশের মতো অস্ট্রিয়ায়ও সাধারণত ভর্তির ছয় মাস আগে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যোগাযোগ করতে হয়। বিষয় ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নির্ধারণ করে অনলাইনে যোগাযোগ করুন।

ভিসা প্রসেসিং

অন্যান্য ইউরোপীয় দেশের মতো অস্ট্রিয়ার ক্ষেত্রেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তির প্রমাণপত্র, শিক্ষাগত যোগ্যতার কাগজপত্র, আর্থিক সামর্থ্যরে প্রমাণপত্র, পাসপোর্টসহ অন্যান্য অনুষঙ্গিক কাগজপত্র প্রস্তুত রাখুন। আগে বাংলাদেশি ছাত্রদের দিল্লিতে অস্ট্রিয়ান দূতাবাসে ভিসার জন্য সাক্ষাৎ করার প্রয়োজন হতো। এখন ভিএফএস গ্লোবালের মাধ্যমে ভিসা প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারবেন। ভিসা আবেদনের আগে ভিজিট করুন ওয়েবসাইট: http://www.vfsglobal.com/Austria/Bangladesh/Student-Visa.html

বৃত্তি

বৃত্তির খোঁজখবর পাবেন এ ঠিকানায় http://www.grants.at/ I http://www.scholarships.at/

প্রধান কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

ইউনিভার্সিটি অব ভিয়েনা

১৩৬৫ সালে অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনা শহরে প্রতিষ্ঠা হয় এ বিশ্ববিদ্যালয়। এখানে চার হাজারের বেশি শিক্ষকের তত্ত্বাবধানে প্রায় ৭০ হাজার ছাত্রছাত্রী পড়াশোনা করছেন।

শিক্ষাবর্ষ: অক্টোবর থেকে জুন।

ভর্তির যোগ্যতা: ন্যূনতম উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমান পাস হতে হবে।

যোগাযোগ: : University of Vienna, Dr. Kar Lueger Ring 1, A 1010 Vienna, Austria.

Tel: +43142770, Fax: 0043142779120, International Office: +431427718241, Email: publicÑunivie.ac.at, Web: www.univie.ac.at

The International University

Vienna Campus, Mondscheingasse 16, A-1070 Vienna, Austria, Web: www.iuvienna.educampusonline.com

Medical University of Vienna

Spitalgasse 23, 1090 Vienna, Austria, Tel: +43 (0)1 40160 – 0, Fax: +43 (0)1 40160 – 910 000, Web: www.meduniwien.ac.at