খবর দিনের খবর

ফেরির তিন কর্মকর্তাকে দায়ী করে প্রতিবেদন

‘ভিআইপির কারণে’ অসুস্থ স্কুলছাত্রের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ী ফেরিঘাটে ‘ভিআইপির কারণে’ দেরিতে ফেরি ছাড়ায় অসুস্থ স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যুর ঘটনায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের গঠিত তদন্ত কমিটি অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। প্রতিবেদনে এ ঘটনায় ফেরিঘাটের তিন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে দায়ী করে সাত দফা সুপারিশ দেওয়া হয়েছে। তবে সুপারিশে সরকারি কর্মকর্তাদের ‘ভিআইপি’ সুবিধা বহাল রাখার পক্ষেই বলা হয়েছে।
মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব রেজাউল আহসানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের কমিটি গতকাল বৃহস্পতিবার অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ে এ প্রতিবেদন দাখিল করে। প্রতিবেদনে তিতাসের মৃত্যুর ঘটনায় ফেরিঘাটের যে তিন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে দায়ী করা হয়েছে, তারা হলেন কাঁঠালবাড়ী ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক সালাম হোসেন, ঘাটের প্রান্তিক সহকারী খোকন মিয়া এবং উচ্চমান সহকারী ও গ্রুপ প্রধান ফিরোজ আলম।
ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার জানান, বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের বেঞ্চে এ প্রতিবেদনের ওপর শুনানি হবে।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নির্ধারিত সময়ের চেয়ে দুই ঘণ্টা দেরিতে ফেরি ছাড়ার কারণে তিতাসের মৃত্যু হওয়ায় ঘাটের এই তিন কর্মকর্তা-কর্মচারী দায় এড়াতে পারেন না। তবে এ ঘটনায় আলোচিত যুগ্ম সচিব আবদুস সবুর মণ্ডল ও জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুল ইসলামের দোষ খুঁজে পায়নি কমিটি।

 

সর্বশেষ..