ডিপিএল নিউজ দিনের খবর স্পোর্টস

ফের ছন্দ হারাল রূপগঞ্জ

ক্রীড়া ডেস্ক: সাবেক ডিপিএল চ্যাম্পিয়ন। গতবারের রানার্সআপ। কিন্তু সেই দলটিকে এবার কিছুতেই ঠিক খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। যে কারণে এক ম্যাচ পরেই বৃহস্পতিবার ছন্দ হারাল দলটি। এদিন জাকির আলী, সাব্বির রহমান ও আল আমিনের ব্যাটিং দাপট দেখা গেলেও বোলাররা করেন হতাশ। তাই এর চড়া মূল্যটা দলটিকে দিতে হয়েছে আবাহনী লিমিটেডের বিপক্ষে ৫ উইকেটে হেরে।

মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বৃষ্টির দাপট ছিল। যে কারণে রূপগঞ্জ ও আবাহনীর ম্যাচে কিছুটা দেরিতে শুরু হয়। আর তাই টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে রূপগঞ্জ সুযোগ পায় ১৮ ওভার খেলার। এর মধ্যে তারা দলীয় স্কোর বোর্ডে তোলে ৫ উইকেটে ১৬২ রান। জাকির আলী ৫২, সাব্বির ৩৫ ও আল আমিন করেন ২৬ রান। তবে বল হাতে শুরু থেকেই খেঁই হারিয়ে ফেলে রূপগঞ্জ। মাঝে অবশ্য আশা জাগিয়েছিলেন মোহাম্মদ শহীদ ও মুক্তার আলীরা। কিন্তু তাদের সেই আশা পূরণ করতে দেননি নাঈম শেখ ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তারা ২ বল আর ৫ উইকেট হাতে রেখে আবাহনীর জয় নিশ্চিত করেন।

আগের মতই বৃহস্পতিবার রূপগঞ্জের ব্যাটিংয়ের শুরুটা ভাল হয়নি। দ্রুতিই সাজঘরে ফেরেন মেহেদী মারুফ। তবে এদিন দ্বিতীয় উইকেটে দারুণ খেলেন জাকির আলি ও সাব্বির রহমান। তারা ৫৬ বলে দলীয় স্কোর বোর্ডে যোগ করেন ৬৯ রান। এরপরই সাব্বির রহমান ৩৫ রান করে ফিরেন। তার দেখান পথ দ্রুতই অনুসরণ করেন সোহাগ গাজীও। তবে এক প্রান্ত আহলে ছিলেন জাকির। তাকে দারুণ সঙ্গ দেন আল আমিন। শেষ পর্যন্ত জাকির ৪২ বলে ৩ চার ও ২ ছয়ে ৫২ রানে ফেরেন। শেষ দিকে আল আমিন ১৪ বলে ২৬ রান করে দলের সংগ্রহ দেড়শর ওপরে নেন। এরপর তিনি ফিরলে দলীয় স্কোর ১৬২ তে নেন নাঈম ইমলাম ও মুক্তার আলী।

১৬৪ রানের লক্ষ্য দিয়েও বল হাতে শুরুটা ভাল হয়নি রূপগঞ্জের। এ সুযোগে আবাহনীর ওপেনার নাজমুল শান্ত ও মুনিম শাহরিয়ার দ্রুত রান তুলতে থাকেন। শেষ পর্যন্ত তাদেরকে বিচ্ছিন্ন করেন নাবিল সামাদ। দলীয় ৫ম ওভারের দ্বিতীয় বলে এ স্পিনার ফিরিয়ে দিন শাহরিয়ারকে। এরপর নাজমুল চেষ্টা করেন আরও দ্রুত ব্যাট চালাতে। তবে তাকে বেশিদূর যেতে দেননি শহীদ। নিজের বলে নিজেই ক্যাচ নেন এ পেসার।

পরে মুশফিকুর রহিম ও আফিফ হোসেন দারুণ খেলে রূপগঞ্জের কাছ থেকে ম্যাচ বের করার আভাস দেন। তবে সেটা সে সময় হতে দেননি সানজামুল ইসলাম। এ স্পিনার মুশফিককে ফেরান এলবিডব্লিয়ের ফাঁদে ফেলে। সেই রেশ থাকতে থাকতেই আফিফকে তুলে নেন মুক্তার আলী। যে কারণে কিছুক্ষণের জন্য জয় উঁকি দিচ্ছিল রূপগঞ্জ শিবিরে। যদিও তা দ্রুত সময়ের মধ্যে মিলিয়ে দেন মোহাম্মদ নাঈম ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ষষ্ঠ উইকেটে তারা ৫১ রানের জুটি গড়ে রূপগঞ্জের স্বপ্ন ভেঙে দেন। নাঈম ১৯ বলে ২ চার ও ২ ছয়ে ৩৯ রানে অপরাজিত ছিলেন। সাইফ ১১ বলে ১ চারে অবিচ্ছিন্ন ছিলেন ১৪ রানে।

রূপগঞ্জের হয়ে ৪০ রানে শহীদ নেন ২টি উইকেট। এদিকে মুক্তার আলী, নাবিল সামাদ ও সানজামুল নেন ১টি করে উইকেট।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..