এসএমই

ফ্যা ক্ট শি ট বাংলাদেশ

#   মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ২৫ শতাংশ আসে এসএমই খাত থেকে

#   মোট কর্মসংস্থানের ৪০ শতাংশ এ খাতে নিয়োজিত

কুটিরশিল্প

কর্মী: সর্বোচ্চ ১৫ জন

সম্পদের পরিমাণ: অনূর্ধ্ব ১০ লাখ টাকা (উৎপাদন খাত)

মাইক্রো শিল্প

কর্মী: ১৬ থেকে ৩০ জন

সম্পদের পরিমাণ: ১০ থেকে ৭৫ লাখ টাকা (উৎপাদন খাত)

ক্ষুদ্রশিল্প (ক)

কর্মী: ৩১ থেকে ১২০ জন

সম্পদের পরিমাণ: ৭৫ লাখ থেকে ১৫ কোটি টাকা (উৎপাদন খাত)

ক্ষুদ্রশিল্প (খ)

কর্মী: ১৬ থেকে ৫০ জন

সম্পদের পরিমাণ: ১০ লাখ থেকে দুই কোটি টাকা (সেবা খাত)

মাঝারি শিল্প (ক)

কর্মী: ১২১ থেকে ৩০০ জন

সম্পদের পরিমাণ: ১৫ থেকে ৫০ কোটি টাকা (উৎপাদন খাত)

মাঝারি শিল্প (খ)

কর্মী: ৫১ থেকে ১২০ জন

সম্পদের পরিমাণ: দুই থেকে ৩০ কোটি টাকা (সেবা খাত)

বিনিয়োগ ৫০ কোটি টাকার ওপরে হলে তা বৃহৎ বা বৃহদায়তনের উৎপাদনমুখী শিল্প হিসেবে বিবেচিত হবে। এ ক্ষেত্রে কর্মী হবে ৩০০ জনের বেশি। আর বৃহৎ সেবা প্রতিষ্ঠানের বেলায় বিনিয়োগ ৩০ কোটি টাকার বেশি হবে এবং কর্মী ১২০ জনের বেশি হতে হবে।

তথ্যসূত্র: জাতীয় শিল্পনীতি-২০১৬

সর্বশেষ..