সারা বাংলা

বগুড়ায় বিএনপি নেতা সিপারকে বহিষ্কারের ঘটনায় মারধর

প্রতিনিধি, বগুড়া: দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে বগুড়া জেলা বিএনপির সাবেক প্রচার সম্পাদক ও জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি সিপার আল বখতিয়ারকে দল থেকে বহিষ্কারের পর ফের মারধরের ঘটনা ঘটেছে। সিপারকে বহিষ্কারের প্রতিবাদে গতকাল রাতে বগুড়া শহরে মহড়া দিয়েছে তার অনুসারীরা। এসময় সিপারের কর্মীরা যুবদল ও ছাত্রদলের দুই নেতাকে পিটিয়ে আহত করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার পর জেলা বিএনপির অফিসসহ শহরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

জানা গেছে, গত ২২ সেপ্টেম্বর বগুড়া শহরের নবাববাড়ী রোডের দলীয় কার্যালয়ে প্রতিনিধি সভা চলাকালে সিপার আল বখতিয়ারের পক্ষ থেকে একদল যুবক হট্টগোল ও চেয়ার ছোড়াছুড়ি করে সভা পণ্ড করার চেষ্টা করে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে গত সোমবার সিপারকে বহিষ্কার করা হয় বলে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে।

পরে গত মঙ্গলবার এই খবর জানাজানি হলে সিপারের পক্ষে রাত ১০টার দিকে ৫০-৬০টি মোটরসাইকেলে দেড় শতাধিক যুবক শহরের জলেশ্বরী তলা ও খান্দার এলাকায় মহড়া দেয়। এসময় জেলা যুবদল সদস্য রেজাউলকে খান্দার এলাকায় পেয়ে তারা মারধর করে। পরে তারা শহরের নবাববাড়ী সড়কে জেলা বিএনপি অফিসের সামনে ছাত্রদল নেতা সৌরভ হাসান শিবলুকে মারধর করে।

খবর পেয়ে পুলিশ বিএনপি অফিসের সামনে অবস্থান নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সহিংসতা এড়াতে শহরের খান্দার, মালতিনগর, রিয়াজকাজী লেনসহ বিভিন্ন এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বহিষ্কৃত নেতা সিপার আল বখতিয়ার বলেন, কারা মহড়া দিয়েছে তিনি তা জানেন না। তবে দল থেকে বহিষ্কার করার সংবাদে তার কর্মী-সমর্থকরা ক্ষুব্ধ হতেই পারে।

বগুড়া সদর থানার ওসি হুমায়ুন কবীর বলেন, সিপার আল বখতিয়ারকে দল থেকে বহিষ্কার করায় তার অনুসারীরা দলীয় কার্যালয়ে ঝামেলা করার চেষ্টা করেছিল। খবর পেয়ে পুলিশ তাদের সরিয়ে দিয়েছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..