প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

বগুড়া-জয়পুরহাট সড়ক:দুই বাসের সংঘর্ষ নিহত ৪, আহত ৪০

 

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়া-জয়পুরহাট সড়কের বাঁশের ব্রিজ নামক স্থানে শুক্রবার রাতে যাত্রীবাহী দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে চারজন নিহত ও  অন্তত ৪০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বগুড়া-জয়পুরহাট সড়কের কালাই বাঁশের ব্রিজ কলিং ফ্রুটস প্রসেসিংয়ের অদূরে ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের (ঢাকা মেট্রো-ক-১৪-৫৯৯১) সঙ্গে জয়পুরহাটগামী এইচআর এন্টারপ্রাইজ (জয়পুরহাট-জ-৪০০০-৩) লোকাল বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই লোকাল বাসের দুই যাত্রী নিহত ও উভয় বাসের অন্তত ৪০ জন যাত্রী আহত হন। দুর্ঘটনাকবলিত দুটি বাসের সামনের অংশ দুমড়ে-মুচড়ে গেছে। এদের মধ্যে চারজনের অবস্থা গুরুতর। নিহত একজনের নাম বেলাল হোসেন মুহুরী (৪০)। তিনি  কালাই  উপজেলার উদয়পুর গ্রামের মৃত আজিমুদ্দিনের ছেলে। নিহত অন্য তিনজনের পরিচয় মেলেনি। স্থানীয় লোকজন, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আহতদের মধ্যে জয়পুরহাট সদর উপজেলার কোমগ্রামের মিলন হোসেন (৩৭) এইচআর পরিবহনের চালক, একই উপজেলার শালগ্রামের লোকমান আলীর ছেলে ফারহাদ হোসেন (২৪), জয়পুরহাট ডিসি চত্বর এলাকার আবদুল খালেকের ছেলে আবু হায়াত (৩৫), মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের কর্মকর্তা মো. শাহজালাল (২৪), শাহাপুর গ্রামের আবদুর রহমানের ছেলে হাবিবুর রহমান (২৫), কালাই বারাহুত গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে (হেলপার) মিঠু হোসেনের (২৪) নাম-পরিচয় পাওয়া গেছে। চালকদের বেপরোয়া গতিই দুর্ঘটনার কারণ বলে দাবি করছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

কালাই থানার ওসি মো. নুরুজ্জামান চৌধুরী জানান, দুর্ঘটনাকবলিত দুটি বাস আটক করেছে পুলিশ।