কোম্পানি সংবাদ পুঁজিবাজার

বঙ্গজ লিমিটেডের ইপিএস বেড়েছে

দ্বিতীয় প্রান্তিক

নিজস্ব প্রতিবেদক: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতের কোম্পানি বঙ্গজ লিমিটেড দ্বিতীয় প্রান্তিকের (অক্টোবর’২০-ডিসেম্বর’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। আর চলতি হিসাববছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) কমেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, দ্বিতীয় প্রান্তিকে (অক্টোবর ২০-ডিসেম্বর ২০) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৮ পয়সা। গত বছরের একই সময় যা ছিল ৩৩ পয়সা। এ হিসাবে আলোচিত প্রান্তিকে ইপিএস কমেছে ১৫ পয়সা। অন্যদিকে প্রথম দুই প্রান্তিকে (জুলাই ২০-ডিসেম্বর ২০) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে তিন পয়সা। আগের বছর একই সময়ে আয় হয়েছিল ৫৭ পয়সা। এ হিসাবেও কোম্পানির আয় কমেছে। ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ সমাপ্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) হয়েছে ২১ টাকা ৩২ পয়সা।

২০২০ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে বিনিয়োগকারীদের জন্য পাঁচ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে কোম্পানিটি। আলোচিত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬০ পয়সা এবং ৩০ জুন তারিখে শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২১ টাকা ২৯ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ হয়েছে এক টাকা ৫৪ পয়সা।

এর আগে ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে কোম্পানিটি পাঁচ শতাংশ নগদ ও পাঁচ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে ইপিএস হয়েছে দুই টাকা ১৭ পয়সা এবং এনএভি দাঁড়িয়েছে ২২ টাকা ২২ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি নগদ অর্থপ্রবাহ হয়েছে ৫৯ পয়সা (লোকসান)।

কোম্পানিটি ১৯৮৪ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘এ’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। কোম্পানির ৫০ কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন সাত কোটি ৬২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। কোম্পানির মোট ৭৬ লাখ ২৪ হাজার ৬৪৪ শেয়ার রয়েছে। মোট শেয়ারের মধ্যে ৩০ দশমিক ৯৯ শতাংশ উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের, প্রাতিষ্ঠানিক ছয় দশমিক ৪৩ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগকারীর কাছে শূন্য দশমিক ১৩ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে ৬২ দশমিক ৪৫ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন ও বাজারদরের ভিত্তিতে শেয়ারের মূল্য-আয় অনুপাতে ১৯৬ দশমিক ৮৩।

এদিকে ডিএসইতে গতকাল কোম্পানিটির শেয়ারদর দুই দশমিক ২৪ শতাংশ বা দুই টাকা ৭০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ১১৮ টাকা ১০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দরও ছিল ১১৮ টাকা ১০ পয়সা। দিনজুড়ে ৮০ হাজার ৮৬৭ শেয়ার মোট ৪৮৮ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর ৯৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা। দিনভর শেয়ারদর ১১৬ টাকা ৯০ পয়সা থেকে ১১৮ টাকা ৫০ পয়সায় হাতবদল হয়। গত এক বছরে শেয়ারদর ১০১ টাকা ১০ পয়সা থেকে ১৭৩ টাকার মধ্যে ওঠানামা করে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..