প্রচ্ছদ শেষ পাতা

বঙ্গবন্ধু ও মুক্তারপুর সেতুর টোলহার বাড়ছে

সোহেল রহমান : বঙ্গবন্ধু সেতু ও মুক্তারপুর সেতুর টোলহার বাড়িয়েছে সরকার। যানবাহনভেদে বঙ্গবন্ধু সেতুর টোলহার ৩৮ থেকে ৪২ শতাংশ এবং মুক্তারপুর সেতুর টোলহার ২০ থেকে ৫০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া নতুন অন্তর্ভুক্তি হিসেবে চার এক্সেল ও এর অধিক অ্যাক্সেলযুক্ত ট্রেইলারকে টোলের আওতায় আনা হয়েছে। গত সপ্তাহে (২৩ মার্চ) সেতু বিভাগের টোলহার পুনর্নির্ধারণ সংক্রান্ত এ প্রস্তাবে সম্মতি দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, এবারের টোলহার পুনর্নির্ধারণের পর আগামী বছর থেকে প্রতি বছর ৫ শতাংশ হারে টোল বাড়ানোরও প্রস্তাব করেছে সেতু বিভাগ।

ইতোপূর্বে সেতু দুটির টোলহার নির্ধারণের পর দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হওয়ার পাশাপাশি সেতু কর্তৃপক্ষের আয়-ব্যয়, ট্রাফিক পূর্বাভাস, সেতু পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণ ব্যয়, ভবিষ্যতে পদ্মা সেতু ও কর্ণফুলী টানেলের অর্থ পরিশোধ এবং দায়-দেনা (ডিএসএল) পরিশোধ ইত্যাদি বিষয় বিবেচনায় নিয়ে বর্তমানে টোলহার বাড়ানো প্রয়োজন বলে সেতু বিভাগের প্রস্তাবে বলা হয়েছে।

সেতু বিভাগের প্রস্তাব অনুযায়ী, বঙ্গবন্ধু সেতুতে মোটরসাইকেলের টোলহার ৪০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫৫ টাকা (বৃদ্ধির হার ৩৮ শতাংশ); হালকা যানবাহন যথাÑ কার, জিপ, মাইক্রো, পিক-আপের টোলহার ৫০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৭০০ টাকা (বৃদ্ধির হার ৪০ শতাংশ); অনূর্ধ্ব ৩১ আসনের ছোট বাসের টোলহার ৬৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৯০০ টাকা (বৃদ্ধির হার ৩৮ শতাংশ); ৩২ আসন ও এর অধিক আসনের বড় বাসের টোলহার ৯০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে এক হাজার ২৫০ টাকা (বৃদ্ধির হার ৩৯ শতাংশ); ৫ টনের কম ছোট ট্রাকের টোলহার ৮৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে এক হাজার ২০০ টাকা (বৃদ্ধির হার ৪১%); ৫ টন থেকে অনূর্ধ্ব ৮ টনের মাঝারি ট্রাকের টোল হার এক হাজার ১০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে এক হাজার ৫৫০ টাকা (বৃদ্ধির হার ৪১%) এবং ৮ টনের অধিক বড় ট্রাকের টোলহার এক হাজার ৪০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে দুই হাজার টাকা (বৃদ্ধির হার ৪২%) নির্ধারণ করা হয়েছে।

এছাড়া নতুন অন্তর্ভুক্তি হিসেবে চার এক্সেল ও এর অধিক এক্সেলযুক্ত ট্রেইলারকে টোলের আওতায় আনা হয়েছে। এর মধ্যে চার এক্সেল পর্যন্ত ট্রেইলারের টোলহার ৪ হাজার টাকা এবং এর বেশি হলে প্রতি এক্সেলের জন্য অতিরিক্ত এক হাজার ৫০০ টাকা হারে টোল দিতে হবে।

সেতু বিভাগ সূত্রে জানা যায়, বঙ্গবন্ধু সেতুর টোলহার প্রথমবার নির্ধারণ করা হয় ১৯৯৭ সালে। এরপর দীর্ঘ ১৪ পর বছর ২০১১ সালে গড়ে ১৪ শতাংশ বাড়িয়ে টোলহার পুনর্নির্ধারণ করা হয়।

মুক্তারপুর সেতু

সেতু বিভাগের প্রস্তাব অনুযায়ী, মুক্তারপুর সেতুতে তিন চাকা বিশিষ্ট ভ্যান ও মোটরসাইকেলের টোলহার ১০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৫ টাকা (বৃদ্ধির হার ৫০%); তিন চাকা বিশিষ্ট অটোরিকশা/সিএনজির টোলহার ২০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৩০ টাকা (বৃদ্ধির হার ৫০%); চার চাকাবিশিষ্ট কার, জিপ, মাইক্রো, টেম্পো, পিক-আপের টোলহার ৪০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৬০ টাকা (বৃদ্ধির হার ৫০%); অনূর্ধ্ব ২৯ আসনের ছোট বাসের টোলহার ১০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৫০ টাকা (বৃদ্ধির হার ৫০%); ৩০ আসন ও এর অধিক আসনের বড় বাস/৫ টন থেকে অনূর্ধ্ব ৮ টনের মাঝারি ট্রাকের টোলহার ২০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২৮০ টাকা (বৃদ্ধির হার ৪০%); ৫ টনের কম ছোট ট্রাকের টোলহার ১৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২০০ টাকা (বৃদ্ধির হার ৩৩%) এবং ৮ টনের অধিক বড় ট্রাক/ট্রেইলার/নির্মাণ যন্ত্রপাতির টোলহার ৫০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৬০০ টাকা (বৃদ্ধির হার ২০%) নির্ধারণ করা হয়েছে।

এছাড়া নতুন অন্তর্ভুক্তি হিসেবে চার এক্সেল ও এর অধিক এক্সেলযুক্ত ট্রেইলারকে টোলের আওতায় আনা হয়েছে। এর মধ্যে চার এক্সেল পর্যন্ত ট্রেইলারের টোলহার এক হাজার টাকা এবং এর বেশি হলে প্রতি এক্সেলের জন্য অতিরিক্ত ৭৫০ টাকা হারে টোল দিতে হবে।

সেতু বিভাগ সূত্রে জানা যায়, মুক্তারপুর সেতুর টোলহার ইতোপূর্বে ২০০৮ সালে নির্ধারণ করা হয়েছিল। যা এখনও অপরিবর্তিত রয়েছে।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..