Print Date & Time : 9 May 2021 Sunday 1:05 pm

বন্ড ছাড়বে আইএফআইসি ব্যাংক

প্রকাশ: March 2, 2021 সময়- 12:09 am

নিজস্ব প্রতিবেদক: আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ ৫০০ কোটি টাকার বন্ড ইস্যু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদ ৫০০ কোটি টাকার নন-কনভার্টেবল সাব-অর্ডিনেটেড বন্ড ছাড়বে। ব্যাংকের টায়ার-২ মূলধনের অংশ হিসেবে এ বন্ড ইস্যুর মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহ করবে। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন সাপেক্ষে বন্ডটি ইস্যু করবে আইএফআইসি ব্যাংক।

২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরে বিনিয়োগকারীদের হিসাববছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। আলোচিত সময়ে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে এক টাকা ৯২ পয়সা এবং ৩১ ডিসেম্বর তারিখে শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ১৮ টাকা দুই পয়সা। ২০১৯ সালে মোট মুনাফা করে ২৮২ কোটি ৭৭ লাখ ৩০ হাজার টাকা।

এদিকে গতকাল ডিএসইতে শেয়ারদর শূন্য দশমিক ৮১ শতাংশ বা ১০ পয়সা কমে প্রতিটি সর্বশেষ ১২ টাকা ৩০ পয়সায় হাতবদল হয়, যার সমাপনী দর ছিল ১২ টাকা ৩০ পয়সা। ওইদিন কোম্পানিটির ৬১ লাখ ৯১ হাজার ৮০৩টি শেয়ার মোট এক হাজার ৬৭ বার হাতবদল হয়, যার বাজারদর সাত কোটি ৬২ লাখ ২০ হাজার টাকা। আর দিনভর শেয়ারদর সর্বনি¤œ ১২ টাকা ২০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ১২ টাকা ৫০ পয়সায় ওঠানামা করে। এক বছরের মধ্যে শেয়ারদর সাত টাকা ৮০ পয়সা থেকে ১৭ টাকা ৯০ পয়সায় ওঠানামা করে।

এর আগে ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাববছরেও ১০ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছে। ওই সময় কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় হয়েছে এক টাকা ২৩ পয়সা আর শেয়ারপ্রতি সম্পদমূল্য দাঁড়িয়েছে ১৭ টাকা ৬৯ পয়সা। ওই সময় মোট মুনাফা করেছে ১৬৪ কোটি ৯৫ লাখ টাকা।

ব্যাংক খাতের এ কোম্পানিটি ১৯৮৬ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়ে বর্তমানে ‘এ’ ক্যাটেগরিতে অবস্থান করছে। চার হাজার কোটি টাকা অনুমোদিত মূলধনের বিপরীতে পরিশোধিত মূলধন এক হাজার ৬১৯ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। কোম্পানিটির ১৬১ কোটি ৯৮ লাখ ৭৩ হাজার ৮৬৮টি শেয়ার রয়েছে। ডিএসই থেকে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্যমতে, কোম্পানির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে রয়েছে চার দশমিক ১১ শতাংশ শেয়ার, সরকারি ৩২ দশমিক ৭৫ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক ২৩ দশমিক ৬৭ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে শূন্য দশমিক ৭৭ শতাংশ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ৩৮ দশমিক ৭০ শতাংশ শেয়ার।