প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

বন্ড সুবিধায় আনা দেড় কোটি টাকার কাপড় জব্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক: তৈরি পোশাক কারখানার জন্য বন্ড সুবিধার আওতায় আমদানি করা দেড় কোটি টাকার কাপড় জব্দ করেছে শুল্ক-গোয়েন্দা অধিদফতর। রাজধানীর উত্তরখানে একটি বাড়ি থেকে এ কাপড় জব্দ করা হয়। রফতানিমুখী কারখানার জন্য আমদানি করা হলেও এ কাপড় খোলাবাজারে বিক্রির লক্ষ্যে মজুত করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

শুল্ক গোয়েন্দা সূত্রে জানা যায়, উত্তরখানের মধ্যপাড়ায় ৯১১ নং বাড়ির নিচতলা থেকে রফতানিমুখী তৈরি পোশাক কারখানার জন্য বিনাশুল্কে বন্ড সুবিধায় আমদানি করা কাপড়ভর্তি গুদাম থেকে প্রায় ২৭ টন ডেনিম কাপড় জব্দ করা হয়। দি এস ডেনিম ফ্যাব্রিক্স নামের গুদামটির মালিক হোসেন মোহাম্মদ মোতালিব। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানান, খোলাবাজারে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রির জন্য তিনি কাপড়গুলো ব্রোকারের কাছ থেকে কিনেছেন, যারা সরাসরি বন্ডেড প্রতিষ্ঠান হতে অবৈধভাবে পণ্য কেনেন।

প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে কোনো ভ্যাট নিবন্ধন নম্বর নেই। এমনকি এর বিপরীতে মোতালিব ট্রেড লাইসেন্স ও টিআইএন দেখাতে পারেননি। তাছাড়া বাড়ির মালিকের সঙ্গে গুদামের কোনো ভাড়ার চুক্তিপত্রও দেখাতে পারেননি। তিনতলা ভবনের মালিকের নাম মোশারফ হোসেন।

শুল্ক-গোয়েন্দারা জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায়, বন্ড সুবিধার অপব্যবহার করে খোলাবাজারে বিক্রির উদ্দেশ্যে এগুলো বিভিন্ন ফ্যাক্টরি থেকে অবৈধভাবে সংগ্রহ করা হয়েছিল। পণ্যের গায়ের লেবেল অনুযায়ী কাপড়ের রোলগুলো সাভার ও কুমিল্লার ইপিজেড থেকে কেনা হয়েছে।

গত রোববার রাতে শুল্ক-গোয়েন্দার দল রাতে গুদামটি সিলগালা করে। গতকাল উপ-পরিচালক মো. সাইফুর রহমানের নেতৃত্বে শুল্ক-গোয়েন্দার একটি দল দিনব্যাপী ইনভেন্টরি করে ২৭ টন পণ্য জব্দ করে। ইনভেন্টরি অনুযায়ী জব্দ রোলের সংখ্যা এক হাজার ১৭৮টি। এগুলোর মোট মূল্য প্রায় এক কোটি ৫০ লাখ টাকা।

এ বিষয়ে শুল্ক-গোয়েন্দা অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান বলেন, গুদামের মালিক এবং যেসব বন্ডেড প্রতিষ্ঠান হতে এই পণ্য অবৈধভাবে বিক্রি করা হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে কাস্টমস আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত ২১ ডিসেম্বর থেকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) মাসব্যাপী এনফোর্সমেন্ট কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এই পণ্য আটক করা হলো।

শাহজালালে সিএনজি ইকুইপমেন্ট আটক: এসআরও শর্ত ভঙ্গ করে অবৈধভাবে খালাসকালে বিপুল পরিমাণ সিএনজি রিফুয়েলিং ইকুইপমেন্ট আটক করেছেন শুল্ক-গোয়েন্দা সদস্যরা। হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এগুলো আটক করা হয়। পণ্যের এয়ারওয়ে বিল নং- বিআরইউ ১১৪৩৭৪৫৪ এবং বিল অব এন্ট্রি নং- সি ১০৫০৩৮৫। পণ্যচালানটি ব্রিটেন থেকে আনা হয়েছে। গত রোববার চালানটি এয়ারফ্রেইট ১নং গেট দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টাকালে শুল্ক-গোয়েন্দার দল চালানটি আটক করে।