প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

বন্যপ্রাণীর অবৈধ ব্যবসা রোধে অ্যাপ

শেয়ার বিজ ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে বন্যপ্রাণীর অবৈধ ব্যবসা বন্ধে একটি স্মার্টফোন অ্যাপ চালু হয়েছে। অ্যাপটির নাম ওয়াইল্ডলাইফ উইটনেস। অস্ট্রেলিয়ার একটি সংস্থা বন্যপ্রাণীর ব্যবসার ওপর নজর রাখে এরকম একটি নেটওয়ার্কের সঙ্গে মিলিয়ে এ অ্যাপটি তৈরি করেছে। খবর রয়টার্স।

অ্যাপটির ব্যবহারকারীরা বন্যপ্রাণীর অবৈধ ব্যবসা হচ্ছে এরকম সন্দেহ হলেই তার ছবি ও তথ্য তুলে ধরতে পারবেন। বলা হচ্ছে, এই তথ্য ও ছবি সূত্র ধরে সংশ্লিষ্ট বাহিনী যথাযথ ব্যবস্থা নিতে পারে।

জাতিসংঘ তথ্য অনুযায়ী, অর্থের হিসাবে প্রতি বছর এই বাণিজ্যের পরিমাণ প্রায় কয়েক হাজার কোটি ডলার ।

পরিবেশ সংরক্ষণবাদীরা বলছেন, বন্যপ্রাণী ও এসব প্রাণীর অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বিক্রি বন্ধে নানা ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হলেও এ ব্যবসা দিনে দিনে বাড়ছে।

যেসব প্রাণী প্রায় হারিয়ে যেতে চলেছে, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সেসব প্রাণীর শিকারও বেড়ে গেছে। তারা বলছেন, বাঘ, গণ্ডার ও হাতি শিকার গত কয়েক বছরে বৃদ্ধি পেয়েছে। কারণ এসব প্রাণীর বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গের চাহিদা আগের তুলনায় বেড়েছে। বলা হয়, চীনই এর সবচেয়ে বড় বাজার। ব্রিটেনে সুপরিচিত একটি গবেষণা প্রতিষ্ঠান চ্যাটাম হাউজ তাদের সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে বলেছে, এই চাহিদা বাড়ছে অত্যন্ত উদ্বেগজনক হারে। প্রতিবেদনের গবেষকরা বলেছেন, হাতির দাঁতের ব্যবসা ২০০৭ সালের তুলনায় দ্বিগুণ হয়েছে। তারা বলছেন, গণ্ডারের শিংয়ের দাম এখন সোনা ও প্লাটিনামের চেয়েও বেশি। যুক্তরাষ্ট্রে এক কিলোগ্রাম শিংয়ের দাম প্রায় ৬৬ হাজার ডলার।

অপরাধ প্রতিরোধী সংস্থাগুলো বলছে, অপরাধীরা এখন বন্যপ্রাণীকে এমনভাবে টার্গেট করছে যা ড্রাগ, অস্ত্র ও মানব পাচারের প্রায় সমান পর্যায়ে চলে এসেছে। স্মার্টফোন অ্যাপটি বিশেষ নজর রাখবে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দিকে; কারণ এ এলাকাকে বন্যপ্রাণীর অবৈধ বাণিজ্যের কেন্দ্র বলে মনে করা হয়।