প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

বরিশালে অবিরাম বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত জনজীবন

প্রতিনিধি, বরিশাল: বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট বায়ুচাপের তারতম্যের কারণে বরিশালে বিরামহীন বৃষ্টি হচ্ছে। এতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

বরিশাল আবহাওয়া অফিস সূত্র জানিয়েছে, বঙ্গোপসাগরে সঞ্চালনশীল বজ্র মেঘমালার কারণে বায়ুচাপের সৃষ্টি হয়েছে। এ বায়ুচাপের তারতম্যের কারণে বজ্রসহ বৃষ্টি হচ্ছে। গত সোমবার রাত থেকে বরিশালে বৃষ্টি হচ্ছে মুষলধারে।

সোমবার সকাল ৬টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল আবহাওয়া অফিস ৬৪ দশমিক এক মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করেছে।

গতকাল সকাল ৬টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত প্রায় ৬০ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করেছে তারা। বৈরী আবহাওয়ার কারণে দেশের তিনটি সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত এবং নদীবন্দরগুলোকে এক নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

এদিকে বিরামহীন বৃষ্টিতে বরিশালের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে শিক্ষার্থী ও কর্মব্যস্ত মানুষ পড়েছেন চরম বিপাকে। সংকট দেখা দিয়েছে অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন যানবাহনের। যানবাহন সংকটের কারণে বেড়েছে রিকশা ও থ্রি হুইলার ভাড়া।

জরুরি কাজ ছাড়া কেউ ঘরের বাইরে বের হচ্ছেন না। হাঁটুপানি উঠেছে নগরীর বটতলা এলাকার নবগ্রাম রোডে। শাখা সড়ক অক্সফোর্ড মিশন রোডও পানির নিচে। সেখানকার একাধিক বাসিন্দা বলেন, বৃষ্টি হলে পানি ওঠে। আবার অতিরিক্ত জোয়ারের সময়ও সড়ক চলে যায় পানির নিচে। বিভিন্ন সময় সিটি করপোরেশনের দায়িত্বরতরা বিষয়টি দেখে

সমাধানের আশ্বাস দিয়ে গেছেন। কিন্তু তা আর সমাধান হয়নি। এ কারণে বৃষ্টি হলে আমরাও প্রস্তুত থাকি দুর্ভোগের জন্য।

এভাবে নগরীর বেশিরভাগ এলাকার সড়ক রয়েছে পানির নিচে। শিক্ষার্থী ও কর্মব্যস্ত মানুষ পড়ে চরম বিপাকে। সংকট দেখা দিয়েছে অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন যানবাহনের। যানবাহন সংকটের কারণে বেড়েছে রিকশা ও থ্রি হুইলার ভাড়া।

জানা গেছে, নগরীর রূপাতলী হাউজিং এলাকার সড়ক সামান্য বৃষ্টিতে চলে যায় পানির নিচে। এ অবস্থা দীর্ঘদিনের। জরুরি কাজ সারতে নৌকা আনা হয়। যানবাহন চলাচলের সুযোগ নেই। বিষয়টি বিভিন্ন সময় হাউজিংয়ের বাসিন্দারা সিটি করপোরেশনকে জানালেও আশ্বাসের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রয়েছে।