প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

বল হাতে ফিরলেন মাশরাফি

ক্রীড়া প্রতিবেদক: শ্রীলঙ্কা সফরে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে কি থাকতে পারবেন নিয়মিত অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা? কয়েক দিন ধরে এ প্রশ্নটা উড়ছিল। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছিলেন, রঙিন পোশাকের অধিনায়ককে ঠিক সময়ে দলের সঙ্গে পাবেন টাইগাররা। গতকাল তার কথার সঙ্গে মিল খুঁজে পাওয়া গেলো মিরপুর একাডেমি মাঠে ঢুকতেই। চোটগ্রস্ত ডান হাতের আঙুলের ব্যান্ডেজ খুলে অল্প  রানিংয়ে এদিন বল করলেন ম্যাশ। এ সময়ে তার সঙ্গে ছিলেন ফিল্ডিং  কোচ রিচার্ড হ্যালসান ও ট্রেনার মারিও ভিল্লাভারায়ন।

গতকাল মিরপুর শের-ই-বাংলায় কিছুটা সময় বোলিং অনুশীলন করেন মাশরাফি। তার প্রতি দৃষ্টি ছিল ট্রেনার ও ফিল্ডিং কোচের। যেখানে তাদের চোখে ম্যাশের সমস্যা মনে হয়েছে। দ্রুতই বুঝিয়ে দেন। আবার সেটা শোধরানোর চেষ্টাও সঙ্গে সঙ্গে করেন টাইগারদের রঙিন পোশাকের অধিনায়ক। তবে গতকাল পুরো রানিংয়ে বল করেননি। কোচিং স্টাফের সদস্যরা আশা  করছেন এভাবে প্রতিদিন একটু একটু করে পুরো রানিংয়ে বল করবেন নড়াইল এক্সপ্রেস।

এর আগে নিউজিল্যান্ড সফরের শেষ টি-টোয়েন্টিতে আঙুলের চোটে পড়েছিলেন মাশরাফি। বে ওভালে ইনিংসের ১৮তম ওভারের দ্বিতীয় বল ছিল সেটি। মাশরাফির ফুল টসে সজোরে সোজা ব্যাট চালিয়েছিলেন কোরি অ্যান্ডারসন। ফলো থ্রুতে ঝাঁপিয়ে বলটি ঠেকানোর চেষ্টা করেছিলেন ম্যাশ নিজেই। বল হাতের তালুতে লেগে ছিটকে যায়। তখনই ব্যথায় কাতরাচ্ছিলেন তিনি। এরপরই মাঠের বাইরে চলে যান তিনি। ওই ওভারের শেষ চারটি বলও করতে পারেননি মাশরাফি। ওভারটি শেষ করেন মোসাদ্দেক হোসেন।

নিউজিল্যান্ড সফরে আঙুলে চোটে পড়ার পর মাশরাফি ছিলেন কয়েক দিনের ছুটিতে। পরিবার নিয়ে বেড়াতে গিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ায়। তবে অনেকেই বলে চিকিৎসার জন্যই নাকি সেখানে ছিলেন তিনি। এরপর দেশে ফিরে বিসিবি চিকিৎসকের পরামর্শমতো রঙিন পোশাকের অধিনায়ক ছিলেন পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায়। সাধারণত এ ধরনের চোট থেকে সেরে উঠতে পাঁচ-ছয় সপ্তাহ সময় লাগে বলে তখনই জানিয়েছিলেন বিসিবি চিকিৎসক। শেষ পর্যন্ত বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যেই হাতে বল তুলে নিলেন মাশরাফি। সঙ্গে সঙ্গে ম্যাশ ভক্তদের মধ্যে আশার সঞ্চার হয়েছে, লঙ্কান সফরেই আবারও প্রিয় তারকাকে দেখা যাবে বল হাতে।

এদিকে শ্রীলঙ্কা সফরকে সামনে রেখে গতকালও পুরোদমে অনুশীলন করে বাংলাদেশ দল। ব্যাট হাতে নিজেদের গতকালও ঝালিয়ে নেন মুশফিকুর রহিম-সাব্বির রহমান। এছাড়া মোস্তাফিজুর রহমান, কামরুল ইসলাম রাব্বি, রুবেল হোসেনরা বল হাতে নিজেদের কাজ করেছেন। ব্যাটিং-বোলিং অনুশীলন শিষ্যদের দেখভাল করেন প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। আগামীকালই ১৩ সদস্যের বাংলাদেশ দল রওনা হচ্ছে শ্রীলঙ্কায়। পাকিস্তান সুপার লিগ থেকে অন্য তিন টাইগার তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ যোগ দেবেন দলের সঙ্গে।