আজকের পত্রিকা

বাংলাদেশ-ভারত যৌথ সীমান্ত হাট

মৌলভীবাজারে উদ্বোধনের অপেক্ষায়

প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজার জেলায় শিগগির চালু হচ্ছে ভারত-বাংলাদেশের যৌথ পরিচালনায় দুটি সীমান্ত হাট। একটি সীমান্ত হাট হচ্ছে জুড়ী উপজেলার সীমান্তবর্তী ফুলতলা ইউনিয়নের পশ্চিম বটুলিতে আর অপরটি হচ্ছে কমলগঞ্জ উপজেলার সীমান্তবর্তী ইসলামপুর ইউনিয়নের কুরমঘাট এলাকায়। মৌলভীবাজারের ডেপুটি কমিশনার (ডিসি) নাজিয়া শিরীন সীমান্ত হাটের সম্ভাব্য স্থানগুলো পরিদর্শন করেছেন। এ হাট চালু হলে স্থানীয় মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি দু’দেশের প্রয়োজন মাফিক আমদানি-রফতানির নতুন এক দিগন্ত উম্মোচিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।
জানা গেছে, ২০১৭ সালের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিল্লি সফরে দু’দেশের মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি সই হয়। এতে চলমান চারটি বর্ডার হাটের সঙ্গে আরও ছয়টি বর্ডারহাট যুক্ত করার কথা উল্লেখ করা হয়। এ ছয়টি বর্ডার হাটের মধ্যে-মৌলভীবাজারের জুড়ি উপজেলার পশ্চিম বটুলি ও ভারতের উত্তর ত্রিপুরার পালবস্তী সীমান্তে এই হাট চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু ভূমি নির্ধারণ ও নানা অবকাঠামোগত সমস্যার কারণে বাংলাদেশ অংশের পশ্চিম বটুলিতে তা বাস্তবায়ন বিলম্বিত হয়। তবে সম্প্রতি এ দুই সীমান্ত হাট চালুর ব্যাপারে উভয় দেশের ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে। সূত্র জানায়, সীমান্ত এলাকার মানুষের জীবনমান উন্নয়ন এবং তাদের উৎপাদিত পণ্যের বাজারজাতকরণে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের চারটি বর্ডার হাট রয়েছে।
এরই ধারাবাহিকতায় এবার মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার কুরমাঘাট ও জুড়ি উপজেলার পশ্চিম বটুলি এলাকায় বর্ডার হাট চালুর কার্যক্রম চলছে। এরই ধারাবাহিতকায় মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরীন পূর্বের নির্ধারিত স্থানটি পরিদর্শন করেন। বাণিজ্য সম্প্রসারণ এবং বাংলাদেশ-ভারতের ব্যবসায়ীদের মধ্যে ঐক্য বাড়াতে বর্ডার হাট বা সীমান্ত বাজার চালু হচ্ছে। বর্ডার হাট চালু সংক্রান্ত যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। ভারতীয় অর্থায়নে অবকাঠামো নির্মাণকাজ শিগগিরই শুরু হবে বলে জানা গেছে।

 

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..