বিশ্ব সংবাদ

বাগদাদির বিরুদ্ধে অভিযানের ভিডিও প্রকাশ পেন্টাগনের

শেয়ার বিজ ডেস্ক: সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের  (আইএস) নেতা আবু বকর আল-বাগদাদির আস্তানায় হামলার প্রথম ভিডিও প্রকাশ করেছে পেন্টাগন। ওই অভিযানে নিজের সুইসাইড ভেস্টের বিস্ফোরণে নিহত হন আইএসের শীর্ষ নেতা। গত বুধবার প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ বাহিনীর সদস্যরা বাগদাদির আস্তানার দিকে এগিয়ে যাওয়ার সময় গুলি ছুড়ছে। খবর: বিবিসি।

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাদের অভিযানের সময় বাগদাদি সুড়ঙ্গের মধ্যে ঢুকে পড়েন এবং সুইসাইড ভেস্টের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আত্মঘাতী হন। অভিযান শেষে আস্তানাটি বোমা মেরে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। মার্কিন সামরিক বাহিনীর সেন্ট্রাল কমান্ডের প্রধান জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি জানান, অভিযানের পর বাগদাদির আস্তানা একটি বিশাল গর্তবিশিষ্ট পরিত্যক্ত পার্কিংয়ের মতো স্থানে পরিণত হয়।

তিনি জানান, অভিযানে বাগদাদির তিন সন্তান তার সঙ্গে নিহত হন বলে জানানো হলেও প্রকৃতপক্ষে মারা গেছে দুই শিশু। তবে কুকুরের তাড়ায় বাগদাদি পালানোর পথ না পেয়ে আত্মঘাতী হন বলে যে বর্ণনা প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দিয়েছেন, তার সত্যতাও নিশ্চিত করতে পারেননি তিনি।

ম্যাকেঞ্জি বলেন, বাগদাদি দুই ছোট শিশুসহ হামাগুড়ি দিয়ে একটি গর্তের ভেতর ঢুকে নিজেকে উড়িয়ে দেন। এ সময় তার অনুসারীরা সেখানে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এর থেকে ধারণা নেওয়া যায় তিনি কী ধরনের লোক ছিলেন। ম্যাকেঞ্জি জানান, বাগদাদির আস্তানায় সুইসাইড ভেস্ট পরা চার নারী ও এক পুরুষ অভিযানে নিহত হয়।

তিনি বলেন, অভিযানের সময় মার্কিন সামরিক হেলিকপ্টারের গুলিতে অজ্ঞাতসংখ্যক আইএস যোদ্ধা নিহত হয়েছে। ম্যাকেঞ্জি আরও বলেন, অভিযানটি অত্যন্ত হাইপ্রোফাইল ও চাপের হওয়া সত্ত্বেও বেসামরিক লোকজনের হতাহত এড়াতে ও শিশুদের রক্ষা করতে সব চেষ্টা করা হয়েছে। তারা ঘটনাস্থলে থাকতে পারে বলে আগেই ধারণা করা হয়েছিল।

তিনি নিশ্চিত করে বলেন, বাগদাদির ডিএনএ টেস্টের মাধ্যমে তাকে শনাক্ত করা হয়েছে। ২০০৪ সালে ইরাকের কারাগারে থাকার সময় তার ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়। বাগদাদির মরদেহ হেলিকপ্টারে করে নিয়ে গিয়ে সামরিক ঘাঁটিতে শনাক্ত করা হয়। পরে তাকে ‘সশস্ত্র সংঘাতের আইন মেনে’ ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সাগরে নিক্ষেপ করা হয়।

সর্বশেষ..