খবর

বাড়তি বাস ভাড়া বাতিলের দাবি রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের

গণপরিবহনের ৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়া বাতিল করে সাধারণ মানুষের স্বার্থে আগের ভাড়ায় গণপরিবহন চালানোর দাবি রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের। রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সাইদুর রহমান এক বিবৃতিতে বলেন, সরকার গণপরিবহন মালিক এবং কিছু শ্রমিক নেতাদের স্বার্থ রক্ষায় অযৌক্তিভাবে বাস ভাড়া ৬০ শতাংশ বাড়িয়েছে। এ বর্ধিত ভাড়া করোনা মহামারিতে আর্থিকভাবে বিপর্যস্ত নি¤œ ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষের জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলবে। এটি চরমতম অন্যায় ও অমানবিক।

তিনি বলেন, দেশে গণপরিবহন যাত্রীর সংখ্যা, মালিক-শ্রমিকদের মানসিকতা, রাজনৈতিক চাঁদাবাজি, নিয়ন্ত্রণ সংস্থার দুর্নীতি ও দুর্বলতার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে গণপরিবহন চালানোর সিদ্ধান্ত অবাস্তব এবং এ বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেওয়া অনেকটা প্রতারণার শামিল। যার প্রমাণ আজকেই বিভিন্ন সড়কে দেখা গেছে। যে অল্প কয়েকটি বাস-মিনিবাস সড়কে চলেছে তার অধিকাংশই স্বাস্থ্যবিধি মানেনি। সব সিট পূর্ণ করে এমনকি দাঁড়ানো যাত্রীও বহন করেছে। অথচ বর্ধিত যাত্রী ভাড়া ঠিক আদায় করা হয়েছে। এটিই বাস্তবতা। আগামীতেও এর ব্যতিক্রম হওয়ার সম্ভাবনা নেই।

এ অবস্থায় বর্ধিত বাস ভাড়া প্রত্যাহার করে সাধারণ মানুষের স্বার্থে আগের ভাড়ায় গণপরিবহন চালানোর ব্যবস্থা করতে তিনি সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। বিজ্ঞপ্তি

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..