বাণিজ্য সংবাদ শিল্প-বাণিজ্য

বাণিজ্য বিরোধ নিষ্পত্তিতে একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার

ঢাকা চেম্বার ও বিয়াকের মধ্যে চুক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) এবং বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল আরবিট্রেশন সেন্টারের (বিয়াক) মধ্যে সম্প্রতি এক সমঝোতা স্মারক বিয়াকের প্রধান কার্যালয়ে স্বাক্ষরিত হয়। ঢাকা চেম্বারের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আফসারুল আরিফিন ও বিয়াকের পরিচালক এমএ আকমল হোসেন আজাদ নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন। গতকাল ডিসিসিআই থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

চুক্তি অনুযায়ী, বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অথবা বাংলাদেশের বাইরে কোনো বাংলাদেশি নাগরিক বা ব্যবসায়ীর অন্য দেশের নাগরিক বা ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বাণিজ্যবিষয়ক বিরোধের সৃষ্টি হলে ঢাকা চেম্বার বিষয়টির বিকল্প নিষ্পত্তি অথবা মধ্যস্থতার নিমিত্তে বিয়াকের সঙ্গে যোগাযোগের সুপারিশ করবে।

এছাড়া মধ্যস্থতা এবং বিরোধ নিষ্পত্তির বিষয়ে দুটো প্রতিষ্ঠানই প্রযুক্তিগত, প্রায়োগিক ও কৌশলগত সহযোগিতা বিনিময় করবে, পাশাপাশি বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তিতে বিয়াকের কার্যক্রমকে আরও সুপরিচিত করে তোলার লক্ষ্যে ঢাকা চেম্বার এবং বিয়াক যৌথভাবে সেমিনার, কর্মশালা, আলোচনা সভা, প্রশিক্ষণ কোর্সের আয়োজন করবে।

অনুষ্ঠানে বিয়াকের প্রধান নির্বাহী (সিইও) মোহাম্মদ এ (রুমি) আলী বিয়াকের নিজস্ব বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি ও মধ্যস্থতা আইনের আওতায় এর প্রাতিষ্ঠানিক বিরোধ নিষ্পত্তি ও মধ্যস্থতা সেবার মাধ্যমে কীভাবে আদালতের সাহায্য ছাড়াই উদ্ভূত যে কোনো ব্যবসায়িক বিরোধ নিষ্পত্তি করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা করেন।

তিনি বলেন, বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি প্রক্রিয়া (এডিআর) একটি আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃতি প্রক্রিয়া, যার মাধ্যমে স্বল্প খরচে, গোপনীয়তা ও নিরপেক্ষতার সঙ্গে দুপক্ষেরই স্বার্থ সংরক্ষণ করে বিরোধ নিষ্পত্তি করা হয়ে থাকে।

তিনি ঢাকা চেম্বারের সদস্যদের মাঝে অথবা অন্য যে কোনো ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বিদ্যমান যে কোনো বাণিজ্য বিরোধ বিয়াকের বিরোধ নিষ্পত্তি সেবা গ্রহণের আহ্বান জানান।

এ সময় ঢাকা চেম্বারের সভাপতি শামস মাহমুদ বলেন, ব্যবসায় কার্যক্রমে উদ্ভূত বিরোধপূর্ণ পরিস্থিতি মোকাবিলায় আরবিট্রেশন এবং মধ্যস্থতা কার্যকরী ভূমিকা পালন করতে পারে এবং এ সমঝোতা স্মারকের মাধ্যমে ঢাকা চেম্বারের সদস্যরা নিজেদের ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডে এডিআরের সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন।

তিনি বলেন, বিয়াক এ ধরনের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বাংলাদেশে স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান, তবে ব্যবসায়ী সমাজে বিয়াকের এ কার্যক্রমকে আরও জনপ্রিয় ও সুপরিচিত করে তোলার গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়া বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে দেশের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তারা উপকৃত হবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

ডিসিসিআই ঊর্ধ্বতন সহসভাপতি এনকেএ মবিন বলেন, দ্বিপক্ষীয় চুক্তি-সংক্রান্ত ব্যবসায়িক বিরোধ নিষ্পত্তিতে স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারকটি একটি নতুন সম্ভাবনার দ্বার উম্মোচিত করবে। এ সময় বিয়াকের জেনারেল ম্যানেজার মাহবুবা রহমান রুনা এবং আইন পরামর্শক রুবাইয়া ইহসান কারিশমা উপস্থিত ছিলেন।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

সর্বশেষ..